প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি : বিশ্বনাথে আ’লীগ নেতার অভিযোগ দায়ের

ফারুক আহমদ, বিশ্বনাথ সিলেট: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাদের ছবিসহ অশালীন পোষ্ট দেওয়ার অভিযোগে সিলেটের বিশ্বনাথ থানায় লিখিত অভিযোগপত্র দায়ের করা হয়েছে। গত ১৫ ডিসেম্বর বিকেলে থানায় লিখিত অভিযোগপত্রটি দায়ের করেছেন বিশ্বনাথ পৌর আওয়ামী লীগ ও উপজেলা যুবলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য শ্রমিক নেতা জুনাব আলী। অভিযোগপত্রটি দায়েরের পর থেকে থানা পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে বলে জানা গেছে।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে উপজেলার সর্বমহলে নানান জল্পনা-কল্পনা সৃষ্টি হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতা জুনাব আলী তার লিখিত অভিযোগপত্রে অভিযুক্ত করেছেন- উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের রামপাশা গ্রামের মৃত মুসলিম আলীর পুত্র শাহজাহান মিয়া (৩০) ও আলমগীর মিয়া (৩৫)’কে।
অভিযোগপত্রে বাদী জুনাব আলী উল্লেখ করেছেন- অভিযুক্ত আলমগীর গত এপ্রিল মাসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে (কল্পনা আক্তার কল্পনা) নামীয় আইডি থেকে বাদীর নাম উল্লেখ করে বিভিন্ন ধরনের অশালীন পোষ্ট দিয়ে অপপ্রচার করে। এতে বাদী সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হন। স্থানীয় মুরব্বীদের মাধ্যমে আলমগীরকে এব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে (আলমগীর) অপপ্রচারের সত্যতা স্বীকার করে ও মুরব্বীদের হস্তক্ষেপে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়।
এরপর গত ১৪ ডিসেম্বরসহ বিভিন্ন তারিখে আলমগীরের ভাই শাহজাহান মিয়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার নামীয় (শাহজাহান মিয়া) আইডি থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাদের ও বাদীর ছবিসহ কটুক্তিমূলক অশালীন পোষ্ট দিয়ে অপপ্রচার করে। সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার অসৎ উদ্দেশ্যে অভিযুক্ত শাহজাহান মিয়া ফেসবুকে থাকা তার নামীয় আইডিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তিমূলক পোষ্ট প্রচার করে আসছে।

এব্যাপরে দ্রুত প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছেন লিখিত অভিযোগপত্রের বাদী আওয়ামী লীগ নেতা জুনাব আলী।

এব্যাপারে অভিযুক্ত শাহজাহান মিয়া বলেন, এই আইডি আমার নয়। আমাকে ফাঁসানোর জন্য ফেইক আইডি করে এমন অপপ্রচার চালানো হচ্ছে, তাছাড়া এব্যাপারে আমি আজ (১৮ ডিসেম্বর) থানায় সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছি।
লিখিত অভিযোগপত্র পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) গাজী আতাউর রহমান বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।