হাফ ভাড়া নিয়ে লাঞ্ছনা,পুরান ঢাকার বকশীবাজার মোড়ে ছাত্রীদের সড়ক অবরোধ

স্টাফ রিপোর্টার: পুরান ঢাকার বকশীবাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করেছেন বেগম বদরুন্নেসা সরকারি গার্লস কলেজের ছাত্রীরা। রোববার (২১ নভেম্বর) সকালে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে সড়কে বসে অবস্থান নেন তারা। এসময় বুয়েট, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও হোসেনি দালান সংলগ্ন সড়কে যানজট সৃষ্টি হয়।

শিক্ষার্থীরা জানায়, শনিবার ঠিকানা পরিবহনের একটি বাস ছাত্রীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নিতে অস্বীকৃতি জানায়। কম ভাড়া দেওয়ায় ছাত্রীদের গায়ে হাত দিয়ে বাস থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়। এ লাঞ্ছনার প্রতিবাদে তারা সড়ক অবরোধ করেছেন।

ইশরাত জাহান লোপা নামে দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, এ রুটের বাসগুলো হাফ ভাড়া দেওয়ায় ছাত্রীদের বাসে তোলে না। ছাত্রী দেখলে দরজা বন্ধ করে রাখে। হাফ ভাড়া দিতে চাইলেই বাসে হইহুল্লোড় করে বাস থেকে নামিয়ে দেয়। আমরা সুশৃঙ্খলভাবে বাসে চলাচল করতে চাই। এ দাবিতে আমরা সড়ক অবরোধ করেছি।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত চকবাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আজিজুল ইসলাম বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলছি। তাদের সড়ক থেকে সরে যাওয়ার অনুরোধ করছি।

সর্বশেষ বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ চলছিল

এর আগে গণপরিবহনে ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার। বাস ভাড়া বাড়িয়ে দূরপাল্লায় প্রতি কিলোমিটারে ১ টাকা ৮০ পয়সা, মহানগরে ২ টাকা ১৫ পয়সা এবং মিনিবাসে ২ টাকা ৫ পয়সা করা হয়েছে। এর মাধ্যমে দূরপাল্লায় প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া ২৬ শতাংশ বা ৩৮ পয়সা এবং মহানগরে ২৬ দশমিক ৫ শতাংশ বা ৪৫ পয়সা ভাড়া বেড়েছে। তবে সিএনজিচালিত বাসের জন্য বাড়তি ভাড়া প্রযোজ্য নয়। এছাড়া সর্বনিম্ন বাস ভাড়া ১০ টাকা, মিনিবাসে ৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

সম্প্রতি প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিনের দাম ৬৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা করা হয়। এর জেরে তিন দিন ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ও লরিচালক-মালিকেরা গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন। তাদের সঙ্গে যোগ দেন বাসচালক-মালিকরা।

তবে অতিরিক্ত ভাড়া বাতিল ও শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকরের দাবিতে প্রথম দিন থেকেই আন্দোলনে নামে ঢাকার বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। শনিবার বিক্ষোভের একপর্যায়ে সাইন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে বাস ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।