সোয়ান গ্রুপের ৩টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ৩৭ কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকির মামলা

জাহাঙ্গীর আলম: এনবিআরের ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদপ্তর সোয়ান গ্রুপের তিনটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ১৩৬.০৫ কোটি টাকার গোপন বিক্রয় হিসাব আটক করেছে। এতে সরকারের প্রায় ৩৬ কোটি ৬৯ লক্ষ টাকার ভ্যাট ফাঁকি সংঘটিত হয়েছে মর্মে তদন্তে উদ্ঘাটিত হয়েছে।

সোয়ান ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ (ফোম) প্রতিষ্ঠানটি যুগিরচালা, মৌচাক, কালিয়াকৈর, গাজীপুরে অবস্থিত।এর মুসক নিবন্ধন নং- ০০০১৪৭৪৩৭-০১০৩। এর দ্বিতীয়টি সোয়ান কেমিক্যালস লিঃ প্রতিষ্ঠানটি যুগিরচালা, মৌচাক, কালিয়াকৈর, গাজীপুরে অবস্থিত। এর মুসক নিবন্ধন নং- ০০০১৫২২২৮-০১০৩। অন্যটি সোয়ান ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ (ম্যাট্রেস), প্রতিষ্ঠানটি ২০০/এ, তেজগাঁও, শি/এ, ঢাকাতে অবস্থিত। এর মুসক নিবন্ধন নং- ০০০১৪৭৩২২-০২০৩।

প্রতিষ্ঠান ৩টি মূলত ফোম, ম্যাট্রেস, কেমিক্যালস ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য পণ্য উৎপাদন ও সরবরাহ করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানটি প্রকৃত সেবা বিক্রি গোপন করে চালান ব্যতিত সেবা সরবরাহ করে দীর্ঘ দিন যাবৎ সরকারের বিপুল পরিমাণ ভ্যাট ফাঁকি দিয়ে আসছে মর্মে ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেন।

এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সংস্থার উপ-পরিচালক জনাব মোহাম্মদ সাজেদুল হক এর নেতৃত্বে গত ২৩/১১/২০২১ তারিখে প্রতিষ্ঠানটির গ্রুপের প্রধান কার্যালয় গুলশান গ্রেস, হাউস-ডিডাব্লিউএস (সি)-০৮, গুলশান-১ ঢাকা-১২১২ এ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে গোয়েন্দার দল দেখতে পান, প্রতিষ্ঠানটি প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন করে মাসিক দাখিলপত্রে প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন করে ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে।

অভিযানের শুরুতে কর্মকর্তাগণ প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট সংক্রান্ত ও বাণিজ্যিক দলিলাদি প্রদর্শনের জন্য অনুরোধ করা হয়। এরপর প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন স্থানে তল্লাশি চালিয়ে এবং প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটারে ধারণকৃত তথ্যাদি যাচাই করে সেবা বিক্রি সংক্রান্ত বাণিজ্যিক দলিলাদি লুকায়িত অবস্থায় আটক করা হয়।

এসব তথ্য ভ্যাট দলিলাদির সাথে ব্যাপক অসামঞ্জস্য পরিলক্ষিত হয়।

তদন্ত অনুসারে, সোয়ান ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ (ফোম) প্রতিষ্ঠানটি জানুয়ারি/২০১৬ হতে নভেম্বর/২০২১ পর্যন্ত সময়ে ১০৫,৬০,৮৩,৫৩৮ টাকার পণ্য বিক্রি করেছে।তবে প্রতিষ্ঠানটি স্থানীয় ভ্যাট সার্কেল (গাজীপুর-৩) এ মাসিক রিটার্নে ৩১,১৬,০৪,২৩৪ টাকা বিক্রিয় হিসাব প্রদর্শন করেছে।রিটার্ন ও প্রকৃত বিক্রয়ের পার্থক্য পাওয়া যায় ৭৪,৪৪,৭৯,৩০৪ টাকা।প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন করায় এক্ষেত্রে ১১,১৬,৭১,৮৯৬ টাকা ভ্যাট ফাঁকি হয়েছে।

এই ফাঁকির উপর ভ্যাট আইন অনুসারে মাস ভিত্তিক ২% হারে ৯,২১,২১,৮৯৯ টাকা সুদ প্রযোজ্য।

এছাড়া, সোয়ান কেমিক্যালস লিঃ প্রতিষ্ঠানটি জানুয়ারি/২০১৬ হতে নভেম্বর/২০২১ পর্যন্ত সময়ে ৪৭,০৬,৩০,৩৩৯ টাকার পণ্য বিক্রি করেছে।তবে প্রতিষ্ঠানটি স্থানীয় ভ্যাট সার্কেল(গাজীপুর-৩) এ মাসিক রিটার্নে ২৯,১৩,১০,৯২২ টাকা বিক্রিয় হিসাব প্রদর্শন করেছে।রিটার্ন ও প্রকৃত বিক্রয়ের পার্থক্য পাওয়া যায় ১৭,৯৩,১৯,৪১৭ টাকা।

প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন করায় এক্ষেত্রে ২,৬৮,৯৭,৯১৩ টাকা ভ্যাট ফাঁকি হয়েছে। এই ফাঁকির উপর ভ্যাট আইন অনুসারে মাস ভিত্তিক ২% হারে ২,০২,৬৩,৫৫৪ টাকা সুদ প্রযোজ্য।