সিলেটে চলছে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

জাকারিয়া আবুল: বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন সিলেট বিভাগীয় কমিটির আহবানে আজ সোমবার ভোর ৬টা থেকে শুরু হয়েছে পরিবহন ধর্মঘট।

এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ছেন শিক্ষার্থী ও অফিসগামী যাত্রীরা। দূরপাল্লার বাসসহ আন্তঃজেলার বাসও বন্ধ রয়েছে।

এদিকে সকাল থেকে অফিসগামী যাত্রীরা পাঠাও, উবার ব্যবহার করে তাদের গন্তব্যে যাচ্ছেন। এতে গুনতে হচ্ছে আগের ভাড়া থেকে দ্বিগুণ। অনেকে আবার পায়ে হেটে অফিসের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছেন। তাছাড়া অটোরিকশা,প্রাইভেটকার,ট্রাক গুটিকয়েক চলাচল করলেও দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুলে আটকে দিচ্ছেন শ্রমিকরা।

সরেজমিনে দক্ষিণ সুরমার নাজিরবাজার, রশিদপুর, লালাবাজারে দেখা যায় অফিসগামী যাত্রীরা আটকা পড়েছেন।বাস ও অটোরিকশা না পেয়ে কেউ কেউ অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাচ্ছেন শহরে।আবার অনেক শিক্ষার্থীরা অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে দেখা গেছে।

অপরদিকে, পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এই কর্মসূচির ডাক দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির নেতারা। ধর্মঘট চলাকালে সিলেটে সব ধরনের গণপরিবহন (বাস, সিএনজি অটোরিকশা) ও পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকবে।

ফেডারেশনের সিলেট বিভাগীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক জাকারিয়া আহমদ জানান, তাদের এই অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট পূর্ব ঘোষিত। গত ৯ নভেম্বর সিলেটের জেলা প্রশাসকের কাছে পাঁচ দফা দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি দিয়ে বাস্তবায়নের আল্টিমেটাম দেয়া হয়। আগামী ২২ নভেম্বরের আগে দাবি না মানলে ওই দিন থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট আহ্বান করা হয়।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু প্রশাসন থেকে দাবি বাস্তবায়নে কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি, এজন্য সোমবার থেকে সিলেটে সর্বাত্মক পরিবহন ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করা হবে।

পাঁচ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, সিলেট জেলা অটোটেম্পু, অটোরিকশা চালক শ্রমিক জোটের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা, সিলেটের আঞ্চলিক শ্রম দফতরের উপপরিচালককে প্রত্যাহার, সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের ওপর দায়ের করা মামলাসমূহ প্রত্যাহার, ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের সকল প্রকার হয়রানি বন্ধ, মেয়াদ উত্তীর্ণ শেরপুর, শেওলা, লামাকাজী, শাহপরাণ ও ফেঞ্চুগঞ্জ সেতু থেকে টোল আদায় বন্ধ এবং চৌহাট্টাসহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে কার, মাইক্রোবাস, লেগুনা, সিএনজিচালিত অটোরিকশসহ সকল প্রকার গাড়ির পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা।