সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র সংঘর্ষে আহত-৭০

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জে সরকারি ইসলামিয়া কলেজ মাঠে বিএনপি’র সমাবেশকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র সমর্থক নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৭০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুরের দিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সমাবেশে আসা মিছিলকে কেন্দ্র করে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার কলেজ রোডে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া, ককটেল বিস্ফোরণ,ইট-পাটকেল নিক্ষেপের একপর্যায়ে জেলা শহরের কলেজ রোড, ইলিয়ট ব্রিজ এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের আহত হয়েছেন অন্তত ৭০ নেতা-কর্মী।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম জানান,খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদ ইউসুফ জুয়েল বলেন,বিএনপির নেতাকর্মীরা শহরের ইসলামিয়া কলেজ মাঠে সমাবেশে যাওয়ার পথে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক শ্লোগান দেয় এবং ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে। এ সময় সরকারি ডিগ্রি কলেজ সংলগ্ন কাটাখালি সেতুর কাছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা এর প্রতিবাদ করলে বাগবিতÐা হয়। একপর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।
এতে তাদের ২০-২৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে তার দাবি। তিনি আরও বলেন, বিএনপির লোকজন লাঠিসোটা, ইটপাটকেল, ককটেল নিয়ে হামলা চালিয়েছে।

এদিকে পাল্টা অভিযোগ করে জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু জানান,গনতন্ত্রের মা দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে বিভিন্ন উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড থেকে মিছিল নিয়ে আসার পথে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় ইট-পাটকেল নিক্ষেপে আমাদের প্রায় অর্ধ শতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শারাফত হোসেন বলেন,পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ দুই শতাধিত রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ব্যবহার করেছে। জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।বিকেল ৫টা পর্যন্ত জেলা শহরের কাটাখালির তিনটি সেতুকে ঘিরে থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে।পাশাপাশি জেলা শহরের সরকারি ইসলামিয়া কলেজ মাঠে বিএনপির সমাবেশে হয়েছে। সেখানে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুসহ কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন।