সিনিয়র ছাড়া খেলোয়াড় নেই, ভুল প্রমাণ হলো: সাকিব

আমার সময় ডেস্ক: বাংলাদেশের ক্রিকেটে সিনিয়র ক্রিকেটার বলতে পাঁচজনের নাম চলে আসবে অবধারিতভাবে। তারা হলেন- তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাদের মধ্যে দুই বছর আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানান মাশরাফি। এরপর গত জুলাইতে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন মাহমুদউল্লাহ। বাকী থাকে তিনজন। এদের মধ্যে ২০১৯ বিশ্বকাপের আগে থেকেই জাতীয় দলের হয়ে একটি ম্যাচও খেলেনি তামিম। আর সাকিব দেশের মাটিতে পাকিস্তান সিরিজে খেললেও পারিবারিক কারণ দেখিয়ে চলতি নিউ জিল্যান্ড সফরে যাননি। এরপরও মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে চলতি টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টটি ৮ উইকেটে জিতে নেয় টাইগাররা। তাদের ঘরের মাঠে এই অসাধ্যকে সাধন করে দেখান তারুণ্য নির্ভর দলটির বোলার ও ব্যাটসম্যানরা। এই বিষয়টিকে ভালো লাগার দিক হিসেবে দেখছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) একটি বাণিজ্যিক চুক্তি সাক্ষর অনুষ্ঠানে এ প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমকে সাকিব বলেন, ‘এটা অবশ্যই ভালো লাগার দিক। মিডিয়ায় সবসময় যেটা মনে করে, আমরা চার-পাঁচজন ছাড়া খেলোয়াড় নেই। তো সেটা ভুল প্রমাণ হলো আমার ধারণা। তাদেরকে (অন্য ক্রিকেটারদের) যদি এভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়, তারা ভবিষ্যতে আরও ভালো করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।’

তিনি বলেন, ‘বছরের শুরুটা যেভাবে হলো, অবিশ্বাস্য। দলের প্রতিটা খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফকে এর কৃতিত্ব দিতে হবে। সবাই যেভাবে চেষ্টা করেছে। কারণ আমাদের আগের বছরটি ভালো যায়নি। এ বছরটি আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। শুরুটা যেহেতু এত ভালো হয়েছে। আশা করি সামনে আরও ভালো কিছু করতে পারব।’

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার আরও বলেন, ‘আসলে সত্যি বলতে এতো ভালো ক্রিকেট খেলা খুব কম সময়ই বাংলাদেশ খেলে থাকে। প্রতিটি খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফকে এই কৃতিত্বটা দিতে হয়। তারা এতো চাপের মধ্যেও এরকম একটা কঠিন কন্ডিশনে গিয়ে এতো ভালো খেলেছে।’