সারাদেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে কেরানীগঞ্জে গণ–অনশন ও বিক্ষোভ মিছিল

এনামুল হাসান (স্টাফ রিপোর্টার)

সারাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর সহিংসতার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে ঢাকার কেরানীগঞ্জে শনিবার (২৩ অক্টোবর) সকালে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে গণ–অনশন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ।

বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেরানীগঞ্জ উপজেলার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মদন কুমার সরকার বলেন, সারাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর নির্যাতন, প্রতিমা ভাংচুর, জ্বালাও- পোড়াও, বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট বন্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি। আমরা হিন্দু সম্প্রদায়ের সুরক্ষা চাই। হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর যে নির্যাতন ও সহিংসতা চালানো হয়েছে সেসব ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আমরা দোষীদের বিচার চাই।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজন কুমার দাস বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দেশে ধর্ম নিরপেক্ষতার বীজ বপন করেছিলেন। যেটা এখন আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান এসব পরিচয়ের থেকেও আমাদের বড় পরিচয় হচ্ছে আমরা মানুষ। আমরা সনাতন ধর্মাবলম্বীরা যারা আছি তাঁরা ১৯৪৭ এ দেশ ভাগের সময় দেশ ত্যাগ করিনি, মুক্তিযুদ্ধের সময়ও দেশ ছেড়ে যাইনি। আমরা এই দেশকে ভালোবাসি। তাহলে কেন আমাদের উপর এমন সহিংসতা, নির্যাতন-নিপীড়ন চালানো হচ্ছে? কেনই বা আমাদের ঘর বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে? যারা এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িত আমরা তাদের বিচার দাবি করছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার বর্মন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শেখর চন্দ্র, সাংগঠনিক সম্পাদক চন্ডী দাশ সরকার, কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি গোপল সরকার, সাধারন সম্পাদক নৃপেন বর্মন, সাংগঠনিক সম্পাদক জীবন শীল, বাংলাদেশ নব কৃষ্ণভক্ত সংঘ (কেন্দ্রীয় কমিটি)
সভাপতি মন্টু বর্মন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পি কে বর্মন প্রমুখ।