শিশু কন্যা ধর্ষন মামলায় পিতা ইমাম হোসেন মিসকিন পুলিশের হাতে গ্রেফতার

নাজিম উদ্দিন চৌধুরী,স্টাফ রিপোর্টার,ফেনী: ফেনীর সোনাগাজী চর সাহাভিকারি এলাকায় ৮ বছরের নিজ শিশু কন্যা কে ধর্ষনের মামলায় পাষন্ড পিতা উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ইমাম হোসেন মিসকিন (৪৬) কে বুধবার ভোরে রাজবাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।এরে আগে ৪ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার দুপুরে নিজ স্বামীর বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন শিশুটির মা।

আজ সকাল ১১ টায় ফেনী পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ফেনীর পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের জানান, গত ২৭ জানুয়ারী সোনাগাজী উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের চর সাহাভিকারি এলাকায় ইমাম হোসেন মিসকিন তার মেয়েকে নিয়ে ঘুমাতে যাওয়ার কথা বলে স্ত্রীর অগোচরে ধর্ষণ করে।এই ব্যাপারে স্থানীয় সমাজপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালামের কাছে মৌখিক অভিযোগ দেন ধর্ষিত শিশুর মা।তিনি বিচার না করে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।

স্থানীয় ভাবে বিচার না পেয়ে গত ৪ ফ্রেব্রুয়ারি দুপুরে ধর্ষনের শিকার শিশুর মা সোনাগাজী মডেল থানায় গিয়ে ধর্ষক ইমাম হোসেন মিসকিন ও চর দরবেশ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কালামে আসামি করে মামলা করে।

ঘটনার পর পালিয়ে যায় ধর্ষক পিতা ইমাম হোসেন। পরে পুলিশ আসামির মোবাইল ট্রেক করে ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় রাজবাড়ি থেকে ইমাম হোসেনকে আটক করা হয়।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, দুপুরে ইমাম হোসেনকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আটককৃত আসামি মিসকিনের বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় ডাকাতি, অস্ত্র, চাঁদাবাজি, বিস্ফোরক, সরকারী কাজে বাঁধাদান, প্রতারণা এবং অপহরণসহ সর্বমোট ১৫ টি বিচারাধীন মামলা রয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা,জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন,সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজেদুল পলাশসহ পুলিশ প্রশাসনের  কর্মকর্তারা।