শক্তিশালী পাসপোর্ট তালিকায় ৫ ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গত বছর শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় বাংলাদেশ দুই ধাপ পিছিয়ে ১০৮তম অবস্থানে পৌঁছেছিল। তবে হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্সের সর্বশেষ তালিকায় ৫ ধাপ এগিয়ে যুদ্ধ্ববিধ্বস্ত লিবিয়া ও কসোভোর সঙ্গে যৌথভাবে ১০৩তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

লন্ডনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হেনলি অ্যান্ড পার্টনারস ২০০৬ সাল থেকে এই তালিকা প্রকাশ করে আসছে। কয়টি দেশে অন-অ্যারাইভাল ভিসা বা ভিসামুক্ত ভ্রমণ করা যায় তার ভিত্তিতে বিশ্বের ১৯৯টি দেশের পাসপোর্টের তালিকা করে প্রতিষ্ঠানটি।

২০২২ সালের তালিকার শীর্ষস্থানে যৌথভাবে আছে জাপান ও সিঙ্গাপুর। আর দ্বিতীয় স্থানে জার্মানি ও দক্ষিণ কোরিয়া।

তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ভারতীয় পাসপোর্ট ৮৩তম স্থানে আছে। ভারতের পাসপোর্ট দিয়ে ৬০টি দেশে অন-অ্যারাইভাল ভিসা পাওয়া যায়।

ভুটানের পাসপোর্ট দিয়ে ৫৩টি দেশে ভিসা-মুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা নিয়ে প্রবেশ করা যায়। ২০২২ সালের তালিকায় দেশটি ৯০তম স্থানে আছে।

ওই তালিকায় বাংলাদেশের চেয়ে একধাপ এগিয়ে ১০২তম অবস্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। দেশটির পাসপোর্ট ৪১টি দেশে ভিসা-মুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা দিয়ে প্রবেশের সুযোগ দেয়।

নেপাল ১০৫তম, পাকিস্তান ১০৮তম ও আফগানিস্তান ১১১তম হয়ে আগের বছরের তালিকার মতো এবারও বাংলাদেশের পেছনে আছে।

মিয়ানমারে সামরিক শাসন চললেও দেশটির পাসপোর্ট দিয়ে ৪৭টি গন্তব্যে অন-অ্যারাইভাল ভিসা পাওয়া যায়। তালিকায় দেশটির অবস্থান ৯৭তম।

২০০৬ সালে বাংলাদেশের পাসপোর্টের তালিকা ছিল ৬৮তম এবং তারপর থেকে এটি ক্রমাগত দুর্বল হতে থাকে। বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়া ৪০টি দেশে যেতে পারে। ২০২০ সালে এই সংখ্যা ছিল ৪১।