রেলের দুই কর্মকর্তাকে বরখাস্ত, সিআরবি’ হাসপাতাল নির্মাণ প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার -রেলমন্ত্রী

জাহাঙ্গীর আলম ব্যুরো প্রধান চট্টগ্রাম: বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের আওতাধীন চট্টগ্রামের পুরাতন রেলওয়ে স্টেশনের পাশে প্রস্তাবিত কল্যাণ ট্রাস্টের জায়গা পরিদর্শনে আসেন রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন।

শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ১২ টার দিকে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের অনুকূলে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন রোডস্থ পুরাতন স্টেশন ও ক্যাশ অফিস মধ্যবর্তী বরাদ্দকৃত ১৫,৮৪০ বগর্ফুট রেলভুমি বানিজ্যিক ব্যাবহারের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন তিনি।

এসময় রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, “আমাদের রেলওয়ের যে কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট আছে তাদের একটি চাহিদা ছিলো তারা তাদের কল্যানের জন্য একটি মার্কেটের প্রস্তাব দিয়েছিলো, কোন যায়গাটা আসলে মার্কেটের জন্য দেয়া হচ্ছে তা মাঠপর্যায়ে দেখার উদ্দেশ্যেই মূলত চট্টগ্রামে আসা। বাংলাদেশ রেলওয়ে’কে আওয়ামী লীগ সরকার অত্যান্ত সুপরিকল্পিত ভাবে এগিয়ে নিচ্ছে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটা উন্নত দেশের স্বপ্ন নিয়ে আমরা রেলটাকে গড়ে তোলার জন্য বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করে যাচ্ছি, তার সঙ্গে আমরা যে সিদ্ধান্তগুলো গ্রহণ করেছি এটি যাতে কোনভাবে অসামঞ্জস্যতা পূর্ণ না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে সমন্বয়ের মাধ্যমে একটি মাস্টার প্ল্যানের অধীনে আমাদের উন্নয়নের পরিকল্পনা যাতে গ্রহণ করতে পারি সেটাই আমাদের মূল উদ্দেশ্য”।

সিআরবিতে হাসপাতাল ইস্যুতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান “হাসপাতালের প্রকল্পটি মূলত গ্রহণ করা হয়েছে পিপিপি ফরমে। নিয়ম অনুযায়ী ৩০% যে উন্নয়ন প্রকল্প রয়েছে তা প্রাইভেট পাবলিক পার্টনারশিপ এর মাধ্যমে বাস্তবায়ন করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অফিসের একজন সচিবের নেতৃত্বে এই অথরিটি আছে, এখান থেকে সব কাজ শেষ করে যখন মাঠ পর্যায়ে কাজটা বাস্তবায়নে গেছে তখনই অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ আসা শুরু হয়েছে, সেগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে, যেহেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে সিদ্ধান্ত এসেছে সেহেতু সেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের অথরিটি আমাদের নেই।”

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় শেষে রেলপথ মন্ত্রী রেলের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে চট্টগ্রাম স্টেশন, স্টেশনের বাহিরে অবস্থিত পার্কিং পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে অপরিচ্ছন্নতা ও অব্যবস্থাপনার কারণে বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক শামস মো. তুষার ও স্টেশন ম্যানেজার রতন কুমার’কে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রাদান করেন রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

এ সময় তিনি পার্কিং’র আয়-ব্যয়ের হিসেব জানতে চান। সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারায় মন্ত্রী তাৎক্ষনিক রেলওয়ে মহাব্যবস্থাপক (পূর্ব) জাহাঙ্গীর হোসেনকে ডিআরএম ও স্টেশন ম্যানেজারকে দায়িত্বে অবহেলা কারণের সাময়িক বরখাস্তের