রাজশাহীতে দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় বাবাকে গলাকেটে হত্যা

আল আমিন হোসেন, রাজশাহী: রাজশাহী মহানগরীতে সন্তানের হাতে পিতার গলাকেটে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় বাবাকে গলাকেটে হত্যার পর বাড়ির টয়লেটের সেফটিক ট্যাংকে লাশ ফেলে দেয়া হয় বলে জানাগেছে। এই ঘটনায় মৃতের সন্তান রাসেল আলী স্বপন (৩২) কে গ্রেফতার করেছে আরএমপি’র দামকুড়া থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। রাজশাহী নগরীর দামকুড়া থানা আসগ্রাম পাটনিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহতের নাম সাজ্জাদ হোসেন (৬৫)। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে বাবাকে গলাকেটে হত্যার পর লাশ সেফটিক ট্যাংকে ফেলে দেয় বলে স্বপন পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

দামকুড়া থানার ওসি মাহবুব আলম জানান, মঙ্গলবার রাত থেকে সাজ্জাদ হোসেন নিখোঁজ ছিল। বুধবার রাতে তার ভাই আব্দুল হাদী থানায় সাধারণ ডায়রী করেন। এর সূত্র ধরে পুলিশ স্বপনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে স্বপন স্বীকার করে তিনি তার বাবাকে প্রথমে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করেন। এতে ব্যর্থ হলে গলাকেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে। পরে লাশ বাড়ির টয়লেটের সেফটিক ট্যাংকে ফেলে দেয়।

স্বপনের স্বীকারোক্তির বরাদ দিয়ে ওসি আরও জানান, এক বছর আগে তার মা মারা যান। এরপর বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য চেষ্টা করছিল। তাদের কথা শুনছিল না। দ্বিতীয় বিয়ে করলে সম্পত্তি ভাগ হয়ে যাবে এই আশঙ্কা থেকেই সে তার বাবাকে হত্যা করে।