মেয়র আব্বাসকে কোর্টে সোপর্দ, রিমান্ডে চায় পুলিশ

আল আমিন হোসেন, রাজশাহী: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার রাজশাহী কাটাখালি পৌরসভা মেয়র আব্বাস আলীকে কোর্টে সোপর্দ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে রাজশাহীর বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ তাকে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে আদালতে সোপর্দ করে। এর আগে বুধবার ভোরে রাজধানীর রাজমনি ঈশা খা হোটেল থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

রাজশাহীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিরাবণ চন্দ্র বর্মণ জানান, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে র‌্যাব সদর দফতর থেকে মেয়র আব্বাস আলীকে নিয়ে রাজশাহীর উদেশ্যে রওনা দেয় বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ। রাত আড়াইটার দিকে রাজশাহীতে পৌছায়। পরে সকাল ৭টার দিকে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক সাহাবুল ইসলাম ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে মেয়র আব্বাসকে আদালতে সোর্পদ করে।

উল্লেখ্য, গত ১৯ নভেম্বর রাজশাহীর কাটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীর সিটি গেট এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। এরপর থেকেই মেয়র আব্বাস পলাতক ছিলেন।

এদিকে এ ঘটনার পর মেয়র আব্বাস আলীকে কাটাখালী পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক পদ থেকে ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। সেইসাথে তার দলীয় প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল চেয়ে কেন্দ্রে সুপারিশ পাঠায় জেলা আওয়ামী লীগ। অন্যদিকে মেয়র আব্বাসের প্রতি অনাস্থা এনে রাজশাহী জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছেন পৌরসভার ১২ কাউন্সিলর।