মেসি-নেইমারদের কোচ জিদান!

স্পোর্টস ডেস্ক: অনেক দিনের গুঞ্জন সত্য করে এবার পিএসজির কোচ হতে যাচ্ছেন জিনেদিন জিদান। ফরাসি পরাশক্তিরা কিংবদন্তি এই কোচকে দলে ভেড়ানোর বিষয়ে রাজি করিয়ে ফেলেছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী মৌসুমের শুরুতেই মেসিদের কোচ হচ্ছেন জিদান।

খবরটা জানিয়েছেন আরএমসি স্পোর্টসের প্রতিবেদক দানিয়েল রিওলো। তার কথা, ফ্রান্সের রাজধানীতে মরিসিও পচেত্তিনোর জায়গাটা নেবেন ‘জিজু’। তবে চলতি মৌসুমেই নয়, এটা ঘটবে মৌসুম শেষে, আগামী গ্রীষ্মকালীন দলবদলে। সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে এই খবর জানিয়েছেন তিনি।

রিওলো সেই ব্যক্তি যিনি গেল গ্রীষ্মে মেসির পিএসজিতে যাওয়ার খবর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করেছিলেন প্রথমবারের মতো। এর আগেও তার ট্র্যাক রেকর্ড বেশ ভালো। যদি এই তথ্য সঠিক হয়, তাহলে আগামী মৌসুমে পার্ক দেস প্রিন্সেসের ডাগ আউটে থাকবেন জিদান, কোচিং করাবেন মেসি-নেইমারদের।

সেটা হয়ে গেলে ইউরোপীয় দলবদলের বাজারও দেখতে পারে নাটকীয় এক পরিবর্তন। বর্তমানে দলবদলের বাজারের প্রধান খবর, কিলিয়ান এমবাপের রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়া। জিদান পিএসজিতে যোগ দিলে তাও পড়ে যেতে পারে ধোঁয়াশায়!

আগামী গ্রীষ্মেই ফ্রি এজেন্ট হয়ে যাচ্ছেন এমবাপে। পিএসজিতে থেকে যাওয়া অথবা রিয়াল মাদ্রিদে খেলার স্বপ্ন পূরণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ এখন তার সামনে আছে। তবে জিদান পিএসজিতে যোগ দিলে ফ্রান্সেই এমবাপের থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কা জানাচ্ছে, এ সিদ্ধান্ত পিএসজি নিয়েছে এমবাপেকে ধরে রাখতেই। যদিও স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমের খবর, এমবাপে ইতিমধ্যেই তার রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্তটা নিয়ে ফেলেছেন। ফলে পিএসজি বেশ দেরিই করে ফেলেছে জিদানকে রাজি করাতে।

তবে এখনও যেহেতু কাগজে-কলমে কোনো চুক্তি স্বাক্ষর হয়নি দুই পক্ষের, তাই জিদানকে দলে ভেড়ালে ফরাসি বিশ্বকাপ জয়ী ফরোয়ার্ডকে ধরে রাখার আশা করতেই পারে পিএসজি। কারণ এমবাপের রিয়ালে খেলার প্রধান আগ্রহটাই তৈরি হয়েছিল জিদানের কারণে। তিনি এএস মোনাকোয় খেলার সময় তার কথা রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজকে জানিয়েছিলেন জিদানই, এমবাপের পরিবারের সঙ্গে কথাও হয়েছিল জিদান-পেরেজের।

এমবাপের কোচিং করানোর আগ্রহটা এখনো মিলিয়ে যায়নি জিদানের। আর তাই মার্কা জানাচ্ছে, এমবাপেকে পিএসজিতে থেকে যেতে যদি কেউ রাজি করাতে পারেন, তাহলে সেটা হবেন জিদানই। সে কারণেই স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমে গুঞ্জন, রিয়াল মাদ্রিদকে না বলে পিএসজিতে থেকে গেলেও যেতে পারেন এমবাপে।