মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহার ও সঠিক তদন্তপূর্বক দোষীদের শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

আল আমিন হোসেন, রাজশাহী: মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহার চেয়ে রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার মৌগাছী গ্রামের সোবহান আলীর মেয়ে আরেছা বেগম (৪৫) সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী পরিবার দোষীদের শাস্তির দাবি করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আরেছা বলেন, মৌগাছী নন্দনহাট এলাকার মৃত খোরশেদ আলমের ছেলে আলমগীর বাবুল (৫২) ৩০ জানুয়ারি বিকালে দেশীয় অস্ত্রসজ্জিত একদল সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমার মুরগী কেনাবেচার দোকান ঘরে আসেন। সেই সময় তারা বে-আইনিভাবে আমার দোকান ঘর ভেঙ্গে জায়গা দখলের চেষ্টা করেন। এ সময় সন্ত্রাসীদের বিপক্ষে প্রতিবাদ করতে ও নিজের মান ইজ্জত রক্ষাতে মুরগী কাটা হাসুয়া নিয়ে তাদের বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করি। বাকবিতন্ডা চলা অবস্থায় আমার পক্ষের লোকজন আসলে সন্ত্রাসীরা ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। শুধুমাত্র মুরগী কাটা একটি হাসুয়া আমার হাতে থাকায় সেদিন আমি আমার মানইজ্জত ও দোকানঘর রক্ষা করতে পারি। সন্ত্রাসীরা আমার হাতে মুরগী কাটা হাসুয়া দেখে ঘটনাস্থলে আর এগিয়ে না এসে হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়।

এর আগেই সন্ত্রাসীদের পক্ষে গত ২৮ জানুয়ারি রোজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় একটি মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে আলমগীর বাবলু ৩০ জানুয়ারি আদালতে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন। সেটি বর্তমানে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করছেন। ২৮ জানুয়ারি সন্ত্রাসীরা মূলত দোকান ভাঙতে এসেছিলো, তা প্রতিহত করতে গিয়ে তারা আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা চাঁদাবাজি, ছিনতাই, লুটপাট মর্মে আদালতে অভিযোগ দিয়েছেন। আসলে দীর্ঘদিন থেকে আমাদের সাথে জমি জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো।

সংবাদ সম্মেলনে আরেছা আরো বলেন, গত ১ ফেব্রæয়ারিতে উক্ত জমির উপর সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ও জবর দখল বন্ধে ১৪৪ ধারায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ চেয়ে আদালতে অভিযোগ দিয়েছি। যাতে করে সন্ত্রাসীরা আমার দোকানঘর ভেঙে দখল করতে না পারেন।

উল্লেখ্য গত ২৮ জানুয়ারি সকালে আলমগীর বাবলু ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী সকালে দোকানঘর বন্ধ করতে ও জায়গা দখল করতে এসেছিলেন। জায়গা দখল করতে না পেরে তারা আদালতে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন। অপরদিকে আরেছা বেগম উক্ত জমির দখল বন্ধে ১৪৪ ধারায় একটি আরজি আদালতে পেশ করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে আলমগীর বাবলুকে ফোন দিলে তিনি বলেন, তারাই আমার জমি দখল করে রেখেছে। গত ২৮ জানুয়ারি আমার দোকান লুটপাট ও চাঁদাবাজি করেছে। জমি জমা নিয়ে তারা বিরোধ সৃষ্টি করছেন। মিথ্যা অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলে আমার করা অভিযোগ সত্য। তাদের অভিযোগগুলোই মিথ্যা।