মহেশখালীর পাহাড়ে র‌্যাবের অভিযান হত্যা মামালার প্রধান আসামী সহ গ্রেপ্তার-৩,অস্ত্র  ও গোলাবারুদ উদ্ধার! 

গাজী মোহাম্মদ আবু তাহের মহেশখালী কক্সবাজার: দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর পাহাড়ী এলাকা থেকে আলোচিত আলা উদ্দিন হত্যা মামালার প্রধান আসামী রফিকুল ইসলাম সহ ৩ সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৫ এর একটি দল।
এ সময় গ্রেপ্তারকৃতদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পাহাড়ের ঢালুতে মাটিতে পুঁতে রাখা ১০টি অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়-২৩ নভেম্বর (মঙ্গলবার)ভোর রাতে মহেশখালী ক্রাইমজোন হিসেবে পরিচিত কালারমারছড়া ইউনিয়নের নয়াপাড়া পাহাড়ী এলাকায় র‌্যাব-১৫ এর অভিযান পরিচালনা করা হয়।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মহেশখালী উপজেলার কালামারছড়া ইউনিয়নের ছামিরাঘোনা এলাকার মৃত মনসুর আলম প্রকাশ রসুর পুত্র  রফিকুল ইসলাম প্রকাশ মামুন (২৮) চিকনীপাড়ার মনিরুল আলমের পুত্র  মোহাম্মদ রিফাত (২৩) ও মোহাম্মদ শাহঘোনার এলাকার মৃত আবদুল আলীর পুত্র আয়ুব আলী (৪০)। তার মধ্যে মামুন ও আয়ুব আলী আত্মসমর্পণ করা জলদস্যু আলাউদ্দিন হত্যা মামলার ১ ও ১২ নং আসামী।
র‌্যাব-১৫ সূত্রে জানা যায়- গত ৫ নভেম্বর মহেশখালীর কালারমারছড়ায় রাতে আত্মসমর্পণকরা জলদস্যু আলাউদ্দিনকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়।
এ ঘটনায় তার ভাই মোহাম্মদ সুমন বাদী হয়ে মহেশখালী থানায় ১৮ জনের নাম উল্লেখ্য করে মামলা দায়ের করেন। তারপর থেকে উক্ত হত্যাকান্ডের ছায়াতদন্ত শুরু করে র‌্যাব-১৫।
তদন্তে গিয়ে ২২ নভেম্বর বান্দরবানের লামার ফাইতং থেকে হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামী রফিকুল ইসলাম প্রকাম মামুন এবং তার সহযোগী রিফাতকে আটক করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামলার ১২ নম্বর আসামী আয়ুব আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়। মূলত নিজেদের অপহরণ করা হয়েছে দাবি করে লুকিয়ে ছিলেন তারা। গ্রেপ্তারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের পর র‌্যাব-১৫ কালারমারছড়ার ছামিরা ঘোনাপাড়ের ঢালুতে  মাটি খুঁড়ে ৪টি একনলা বন্দুক, একটি বন্দুক, ৩টি এলজি, ১টি বিদেশি পিস্তল, ১টি ম্যাগাজিন, ২ রাউন্ড তাজা গুলি ও ৫ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করে।
কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সিপিসি কমান্ডার মেজর শেখ ইউসূফ আহমেদ জানান- ১টি হত্যা মামলার রহস্য উম্মোচিত হওয়ার পাশাপাশি হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা শেষে মহেশখালী থানায় হস্তান্তর করা হয়।
র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক লে.কর্নেল খায়রুল ইসলাম সরকার অভিযানের বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত  বলেন- কক্সবাজারে জেলায় মাদক ও সন্ত্রাসবাদ দমনে র‌্যাব-১৫ এর অভিযান চলমান থাকবে। মাদক ও সন্ত্রাসবাদ দমনে এলাকার সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।