মহিষার ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডরে অসমাপ্ত কাজ কে সমাপ্ত করার জন্যই প্রার্থী হয়েছি 

মোঃ ফারুক হোসেন, শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি: চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চতুর্থ ধাপে শরীয়তপুর জেলার ভেদেরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন-২১ এ বিভিন্ন প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা ও ভোটারদের ভোট প্রত্যাশায় বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি সহ ভোটারদের আকর্ষণে গণসংযোগ সহ সব রকম প্রস্তুতি চলছে প্রার্থীদের। তেমনি ভেদরগঞ্জ উপজেলার মহিষার ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নং ওয়ার্ডের একজন মেম্বার প্রার্থী মোঃ শহিদুল্লাহ তপাদার। তিনি সদ্যবিদায়ী একজন মেম্বার। মেম্বার থাকাকালীন তিনি এলাকার রাস্তাঘাট সহ স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মন্দিরে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছে বলে জানান এলাকাবাসী। এলাকার কিছু কাজ এখনো অসমাপ্ত রয়েছে, তাই অসমাপ্ত কাজ গুলো সমাপ্ত করার জন্য এবারও প্রার্থী হয়েছেন বলে জানান মেম্বার প্রার্থী মোঃ শহিদুল্লাহ তফদার। ইতিমধ্যে তিনি প্রচার-প্রচারণায় ও রয়েছেন সকলের শীর্ষে। তিনি ফুটবল মার্কা প্রতীক নিয়ে আগামী ২৬ ডিসেম্বর ২১ ইং তারিখের নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয় লাভ  করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তার কর্মী সমর্থক ও এলাকার মুরুব্বিগণ।

সাধারণ ভোটাররা অনেকেই বলছেন আমরা ৮ নং ওয়ার্ডের দায়িত্বভার একজন সৎ ও যোগ্য লোকের হাতে দিতে চাই, জিনি আমাদের সুখে-দুঃখে পাশে থেকে আমাদের এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করবে। সে হিসেবে শহিদুল্লাহ তপাদার আমাদের ওয়ার্ডের একজন  সৎ ও যোগ্য প্রার্থী। ইতিমধ্যে তিনি মেম্বার থাকাকালীন এলাকার বেশ উন্নয়ন করেছে, আমরা আশা করি এবারও তিনি আমাদের এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন। তাই আমরা তাকে এবারও ভোট দিয়ে বিজয়ী করে এলাকার উন্নয়নের দায়িত্ব তার হাতে তুলে দিব। আমরা তাকে ভোট দিয়ে বিজয় সুনিশ্চিত করব।

আপনি বিগত নির্বাচনে একজন বিজয়ী জনপ্রতিনিধি ছিলেন, দায়িত্বে থাকাকালীন এলাকায় কি ধরনের উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন এবং এবার কেন প্রার্থী হয়েছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে প্রার্থী শহিদুল্লাহ তপাদার বলেন, আমি দায়িত্বে থাকা কালিন এলাকার রাস্তাঘাট, স্কুল, মসজিদসহ বেশকিছু উন্নয়ন করেছি। শতভাগ না হলেও এলাকার বেশিরভাগ মাদক ও জুয়া মুক্ত করতে সক্ষম হয়েছি। যুব সমাজের অবক্ষয়ের হাত থেকে বাঁচাতে যা যা করণীয় সকল ধরনের চেষ্টা করেছি। তবে কিছু কাজ এখনো পুরোপুরি সম্পূর্ণ করতে পারিনি, এ কাজ গুলো সম্পন্ন করার লক্ষে আমি পুনরায় প্রার্থী হয়েছি। আশা করি জনগণ আমাকে পুরোরায় ভোটের মাধ্যমে বিজয়ী করবে এবং আমার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করতে সক্ষম হবো। এলাকার যুবক ও মুরুব্বিগণের আশ্বাসে আমি পুনরায় প্রার্থী হয়েছি। আশা করি এলাকাবাসী আমাকে ভোটের মাধ্যমে বিজয়ী করে তাদের পাশে রাখবে এবং অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার সুযোগ দেবে।