মণিরামপুরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীরমুক্তিযোদ্ধা চৈতন্য বিশ্বাসের শেষকৃত্য সম্পন্ন

হোসাইন নজরুল হক, মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি: রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় প্রয়াত বীরমুক্তিযোদ্ধা চৈতন্য বিশ্বাসের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে মণিরামপুরে পৌর এলাকার তাহেরপুর মহাশ্মশানে তার শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। তিনি বুধবার সন্ধ্যা ৬.০৫ মিনিটে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। মৃত্যুকালে তিনি দুই ছেলে ও তিন মেয়ে নাতী-নাতনীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার বড় মেয়ে এনএসআই (জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা)-এর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং জামাই যশোরের পুলিশ সুপার। মৃতের বড় ছেলে প্রকাশ বিশ্বাস জানান, তার বাবা বার্ধ্যক্য জনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। সম্প্রতি অসুস্থ হলে তার বাবাকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরোলোকগমন করেন। মরদেহ বাড়িতে আনার পর ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান শেষে উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়। সেখানে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে নির্বাহী অফিসা সৈয়দ জাকির হাসানের নেতৃত্বে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এরপর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষে গার্ড অব অনার প্রদানের পর মরদেহ গ্রামের বাড়ি পৌর এলাকার জুড়ানপুর নেয়া হয়। সেখানে আচার অনুষ্ঠান শেষে তাহেরপুর মহাশ্মশানে নেয়ার পর শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় জোয়ার্দ্দার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা হুমায়ুন কবীর কবু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ফারুক হোসেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম, থানার ওসি নুর-ই আলম সিদ্দিকী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আলা উদ্দীন, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মফিজুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা আইনজীবী সমিতির সহ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. বশির আহম্মেদ খান, জেলা পরিষদের সদস্য গৌতম চক্রবর্তী, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তুলসি বসু, সাধারণ সম্পাদক তরুণ কুমার শীল, আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ মিলন, ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন, যুবলীগের সাবেক সভাপতি দেবাশীষ সরকার বাবু, জয়ন্ত কুমার বসু প্রমুখ।