মগবাজারে কিশোরের নির্মম মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক দুই বাসের চালক’কে গ্রেফতার

মাসুদ রানা: গত ২০ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে ঢাকা মহানগরীর মগবাজার মোড়ে বিকেল ০৫ ঘটিকার সময় আজমেরী গ্লোরি পরিবহনের দুইটি বাস প্রতিযোগিতামূলকভাবে বেপরোয়া চালানোর কারণে মোঃ রাকিবুল হাসান (১৪) নামে এক কিশোর বাস দুটির মধ্যবর্তী স্থানে চাপা পড়ে। ঘটনাস্থল হতে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। দূর্ঘটনা পরবর্তীতে দুই ঘাতক ড্রাইভার বাস দুটি রেখে পালিয়ে যায়। ভিকটিম উক্ত স্থানে মাস্ক বিক্রি করছিলেন। বর্ণিত ঘটনা দেশব্যাপী ব্যাপক চাঞ্চ্যলের সৃষ্টি হয়।

উক্ত দূর্ঘটনায় নিহতের পরিবারের সদস্যরা সড়ক ও পরিবহন আইন ২০১৮ এর ৯৮ ও ১০৫ ধারায় রমনা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।মামলা দায়েরের পর থেকে র‍্যাব গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-৩ িএর আভিযানিক দল গত ২৫ জানুয়ারি ২০২২ তারিখ রাতে ঢাকা মহানগরীর পল্টন এলাকা এবং মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর এলাকা হতে আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের দুইটি ঘাতক বাসের চালক,মোঃ মনির হোসেন (২৭),মোঃ ইমরান (৩৪)’কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত বর্ণিত ঘটনায় তাদের সংশ্লিষ্টতার তথ্য দেন।

গ্রেফতারকৃত ১নং আসামী মনির হোসেন (২৭) জানায় যে, ইতিপূর্বে সে ০৫ বছর যাবৎ মধ্যপ্রাচ্যে কর্মরত ছিল। গত ০৩ মাস পূর্বে সে বাংলাদেশে তার নিজ গ্রামের বাড়ি ভোলাতে আসে এবং প্রায় দেড় মাস পূর্বে ঢাকাতে কর্মসংস্থানের জন্য আসে। প্রায় ০১ মাস পূর্বে থেকে আজমেরী গ্লোরী গাড়ীর চালকের সাথে ঐ গাড়ীতে দৈনিক ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা মজুরিতে হেলপারি শুরু করে। সে মাঝে মধ্যে বাসটি চালনা করতো বলে জানায়। গত ২০ জানুয়ারি ২০২২ আনুমানিক ০৪ ঘটিকার সময় আজমেরী গ্লোরি পরিবহন (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৫৭৮৭) সদরঘাট থেকে গাজীপুর চন্দ্রার উদ্দেশ্যে গাড়ীর মূল চালক চালিয়ে নিয়ে আসে। পথিমধ্যে চালক গুলিস্তানে এসে গাড়ীটি হেলপার মনির হোসেন এর দায়িত্বে দিয়ে যায় এবং মনির গাড়ীটি চালিয়ে মগবাজার মোড়ে নিয়ে আসে। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা জানায়, মগবাজার মোড়ের সিগন্যাল ছেড়ে দিলে দ্রুত গাড়ী দুইটি এগিয়ে যাচ্ছিলো, তাদের উদ্দেশ্য ছিল পরবর্তী স্টপেজে যে আগে পৌঁছাতে পারবে সে বাসের জন্য অপেক্ষারত বেশী সংখ্যক যাত্রীদের তার বাসে নিতে পারবে। এমতাবস্থায় অসুস্থ প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে এক গাড়ী অপর গাড়ীটিকে ওভারটেক করার সময় দুই গাড়ীর মাঝখানে চাপা পড়ে উক্ত কিশোর। উক্ত ঘটনার পরপরই গাড়ীর চালকদ্বয় মনির হোসেন এবং ইমরান হোসেন বাস দুটি রেখে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান,র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।