ভোটের মাঠে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার লোমহর্ষক বর্ননায় অশ্রুসিক্ত মেম্বার প্রার্থী

আব্দুল্লাহ আল লোমান, জামালপুর জেলা প্রতিনিধিঃ বিগত ২৮শে নভেম্বরে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার চরপুটিমারী ইউনিয়নের আগ্রাখালী কেন্দ্রে সদস্য প্রার্থীদের মধ্যে  সহিংসতার ঘটনায় কেন্দ্রটি স্থগিত ঘোষণা করা হয়।স্থগিতকৃত কেন্দ্রগুলোর আবার ৩০শে ডিসেম্বরে নির্বাচনের দিন ধার্য হওয়ায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনায় ভোটের মাঠে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার লোমহর্ষক বর্ননা দিতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত মেম্বার প্রার্থী ইউসুফ আলী।
বুধবার রাতে ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ডিগ্রীরচর দক্ষিণ পাড়া এলাকায় এক নির্বাচনি আলোচনা সভায় মেম্বার প্রার্থী ইউসুফ আলী তার নলকূপ প্রতিকে ভোটারদের নিকট ভোট প্রার্থনা করতে গিয়ে বলেন,বিগত ২৮শে নভেম্বর নির্বাচনে আমার প্রতিপক্ষ আগ্রাখালী গ্রামের আমির আলীর ছেলে আসাদুল্লাহ আশার বাড়িঘর কে বা কারা ভাংচুর করেছে সেটা আমি জানি না।এর জের ধরে তারা আমাকে প্রধান আসামি করে মামলা করেন।আমার এলাকার লোকজন ভয়ে এলাকা ছাড়ে। আর সেই সুযোগে আমাদের এলাকার আমার সমর্থকদের অনেকের নলকূপ,ছাগল,গরু সহ ৭-৮জনের ঘরে সিঁধকেটে চুরি করতেও বাকি রাখেনি।বাড়িতে কিছু সংখ্যক মহিলা যারা ছিলো তাদেরকেও দেখানো হয়েছে ভয় ভিতি।ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের ফালা ঢেগার ইত্যাদির ভয় দেখিয়ে এলাকা ছাড়তে বাধ্য করেছে তারা। কত নির্ধয় হলে মানুষ এমন কাজ করতে পারে?আমাদের মামালাদ্বয়ের জামিন পেতে এই ১৭টা দিন খুবই কষ্টে ও চিন্তায় অতিবাহিত হয়েছে। তাদের অপকর্মে অতিষ্ঠ হয়ে পরেছে লোকজন।সামনে ৩০তারিখে আপনারা সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে ভোট দিতে যাবেন এবং আমার নলকূপ প্রতিকে একটা করে ভোট দিয়ে এই এলাকার সম্মান রক্ষা করবেন এটাই আমার পত্যাশা।
ভোটারদের মধ্যে থেকে এমন ঘটনার আরও তিন চারজনের এমন পত্যক্ষ বর্ননা দিতে গিয়ে উপস্থিত সকলের মাঝে কান্নার রোল পরে যায়।সকলেই সমস্বরে চিৎকার করে বলতে থাকেন,এটা ইউসুফের নির্বাচন নয়,এটা আমাদের নির্বাচন।আমরা যদি সুষ্ঠভাবে ভোট দিতে পারি,তবে এমন জনবান্ধন লোককে কেউ ধমিয়ে রাখতে পারবেনা। প্রশাসনের নিকট আমাদের দাবি আমরা যেন শান্তিপূর্নভাবে ভোট দিতে পারি।