ভেসুলে সেরা ফারুকীর ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’

নিজস্ব প্রতিবেদক: মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর পরিচালনায় আলোচিত সিনেমা ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’। এবার ফ্রান্সের ২৮তম ভেসুল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে দর্শকদের পছন্দের সেরা হয়েছে।

২ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া আট দিনব্যাপী এ আয়োজন শেষ হয়েছে ৮ ফেব্রুয়ারি। সমাপনী অনুষ্ঠানে ফারুকীর হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। উৎসবে হাজির হয়ে পুরস্কার গ্রহণের পর ফ্রান্স থেকে নিজেই জানিয়েছেন ফারুকী।

এ সম্পর্কে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বলেন, ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ আমার জন্য বিশেষ কিছু। তিন মহাদেশে বিস্তৃত আমার পুরো টিমের জন্য এই পুরস্কার। দর্শকদের তাড়াতাড়ি ছবিটি দেখাতে চাই। আশা করি, সেটা শিগগিরই হবে।’

ফ্রান্সের ভেসুল শহরের হওয়া এই উৎসবের পুরো নাম ‘ভেসুল ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল ফর এশিয়ান সিনেমা’। এটি করা হয় এশিয়ার সিনেমাকে প্রাধান্য দিয়ে। ১৯৯৫ সাল থেকে হয়ে আসছে উৎসবটি।

শনিবার (৬ জানুয়ারি) এই উৎসবে ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’র প্রথম প্রদর্শনী হয়। এতে উপস্থিত থাকতে না পারলেও দ্বিতীয় শোতে (রবিবার) সশরীরে উপস্থিত হন নির্মাতা ফারুকী। সিনেমা শেষে দর্শকদের সরাসরি প্রশ্নোত্তর পর্বেও অংশ নেন তিনি।

সেই অভিজ্ঞতা সবার সঙ্গে শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ফারুকী লেখেন, ‘ভেসুলে দ্বিতীয় প্রদর্শীর সময় যেটা ঘটলো, সেটা আমার জন্য একদম নতুন অভিজ্ঞতা। আগের দিন ছিল ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’র প্রথম শো, যেটা আমি মিস করেছি। তো দ্বিতীয় শো’য়ে ঢুকবো প্রশ্নোত্তর পর্বে যোগ দেওয়ার জন্য। দেখি, তিনজন প্রবীণ মানুষ হলের দরজায় দাঁড়িয়ে আছেন।

ভলান্টিয়ার আমাকে এসে জানালেন, উনারা কালকে আমার ফিল্ম দেখেছেন। দেখে খুব মুভড হয়েছেন। কিন্তু অন্যসব দর্শকদের মতোই আমাকে না পেয়ে মন খারাপ করেছেন। কিন্তু পরে যখন জানতে পেরেছেন, আজকের প্রশ্নোত্তর পর্বে আমি থাকবো, তখন তারা বহুদূর থেকে আজকের শোতে এসেছেন শুধু প্রশ্নোত্তর পর্ব দেখার জন্য এবং আমাকে ভালোবাসা জানানোর জন্য। আমি খুব ছোট একজন মানুষ, তারচেয়েও ছোট ফিল্মমেকার। ভালোবাসা পেলে আমি আবেগাপ্লুত হয়ে যাই।’

সিনেমার এতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন বলিউড অভিনেতা নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি। এছাড়াও বাংলাদেশ থেকে আছেন তাহসান, অস্ট্রেলিয়া থেকে মেগান মিশেল, ভারত থেকে ঈশা চোপড়া, বিক্রম কোচার ও কিরণ।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ চলচ্চিত্রে প্রযোজক হিসেবে যুক্ত আছেন ফরিদুর রেজা সাগর, অঞ্জন চৌধুরী, নুসরাত ইমরোজ তিশা, ভারতীয় নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি ও আমেরিকান প্রযোজক শ্রীহরি সাঠে ও ছবিতে সংগীত পরিচালনার পাশাপাশি সহপ্রযোজকও এ আর রাহমান।