বেসামরিক প্রশাসনের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বারোপ সেনাপ্রধানের

নিজস্ব প্রতিবেদক: বেসামরিক প্রশাসনের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বারোপ করেছেন সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) সকালে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের তৃতীয় দিনের প্রথম অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় সেনাপ্রধান বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তাদের প্রচলিত যে দায়িত্বগুলো পালন করে সেগুলো পালনের ক্ষেত্রে বেসামরিক প্রশাসনের সহায়তা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমি নিজেই এখানে এসেছি, এটা ইনডিকেট করে যে, আমি এটাকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়েছি। আমরা সোনার বাংলা গড়ার যে অভীষ্ট লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছি, সেখানে সামরিক প্রশাসনের সঙ্গে বেসামরিক প্রশাসন একসঙ্গে কাজ না করলে অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো যাবে না।

ডিসিদের কাছ থেকে কোনো প্রস্তাব এসেছে কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট কোনো প্রস্তাব নেই। কিন্তু আমাদের যেসব সিভিল মিলিটারি রিলেশন বাড়ানোর ক্ষেত্র আছে, সেগুলো আমরা আলোচনা করেছি। কিছু কিছু প্রস্তাব আছে যেগুলো এখনই বললে প্রিম্যাচিউরড হয়ে যাবে। আমরা আরও একটু আলোচনা করে দেখব, তারপর ওটাকে বাস্তবায়ন করা যাবে।’

জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, সমস্ত কর্মকাণ্ডের ক্ষেত্রেই আমরা দেখেছি যে, বেসামরিক প্রশাসনের সহায়তা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বেসামরিক প্রশাসন যখনই মনে করবে যে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তাদের পাশে দায়িত্ব পালন করতে পারবে, আমরা তখনই তাদের ডাকে সাড়া দেব এবং তাদের পাশে বসে দায়িত্ব পালন করব।

সেনাপ্রধান আরও বলেন, ‘আমার তরফ থেকে যে কোনো কাজ একসঙ্গে করতে একটা পরিবেশ খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ভালো পরিবেশের জন্য ভালো সম্পর্ক গুরুত্বপূর্ণ। আমি ফোকাস করেছি যেন আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়ে। যত যোগাযোগ হবে, তত যোগাযোগ ঘাটতি কম হবে। যোগাযোগ ঘাটতি যত কম হবে, তত আমাদের কাজ করার সুবিধা বাড়বে। এ কথাটা অন্যান্য বক্তব্যের সঙ্গে বলেছি।’