বিশ্বনাথে যুবকের লাশ উদ্ধার

ফারুক আহমদ বিশ্বনাথ সিলেটে: সিলেটের বিশ্বনাথে এনামুল হক (৩৫) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তিনি উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের বাউসী গ্রামের ইসাক আলীর ছেলে। বুধবার (১৭ নভেম্বর) সকালে নিজ বাড়ির মূল সড়ক থেকে তার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, রাতের যেকোনো সময় তাকে হত্যা করে লাশ ওই স্থানে ফেলে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (১৭ নভেম্বর) সকালে এনামুলের নিজ বাড়ির সড়কে ক্ষত-বিক্ষত রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেরে থানা পুলিশকে অবহিত করেন এলাকাবাসী।
খবর পেয়ে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন। পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, রাতের আধাঁরে যে কোন সময় তাকে হত্যা করে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে। তবে, কে বা কারা ? কি কারণে ? নৃসংশ ভাবে কুপিয়ে এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে ? তা জানাতে পারেনি কেউ। তবে নিহত এনামুল হক ইয়াবা সেবনকারী ও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে বলে এলাকায় গুঞ্জন রয়েছে।

এব্যাপারে এনামুলের ছোট ভাই নাজমুল হক জানান, পেশায় গাড়ী চালক এনাম দীর্ঘদিন ধরে কর্মহীন হয়ে বাড়িতে বসবাস করছিলেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়ে রাতে আর বাড়িতে ফিরেনি। এরপর আজ (বুধবার) ভোরে বাড়ির থেকে ১ গজের মধ্যে মূল সড়কে তার ক্ষত-বিক্ষত রক্তাক্ত মৃত দেহ পাওয়া যায়। ঘাতকের অস্ত্রের আঘাতে মুখ ও কপাল বিকৃত ছিল।

লাশ উদ্ধারের সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) গাজী আতাউর রহমান বলেন, তার শরীরে একাধিত আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। নিহত এনামুল মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলো এবং নিজেও একজন মাদক সেবনকারী। তবে হত্যাকান্ডের প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পুলিশী তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।