প্রধানমন্ত্রীর মুখের ওপরে গেট বন্ধ করে দিয়েছিলেন: আইনমন্ত্রী

মোঃ আল মামুন, জেলা প্রতিনিধি,ব্রাহ্মণবাড়িয়া: বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছেলে মারা যাওয়ার পর সমবেদনা জানানোর জন্য তার বাসায় যান। তখন স্বাভাবিকভাবেই প্রধান প্রধানমন্ত্রীর মুখের ওপরে গেট বন্ধ করে দিয়েছিলেন, বাসায় ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এটি শুধু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অপমান করা হয়নি, সারা বাংলাদেশের মানুষকে অপমান করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।
শুক্রবার(১০ডিসেম্বর) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশন-সংলগ্ন সিরাজুল হক পৌর মুক্তমঞ্চে আয়োজিত কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এমন মন্তব্য করেন।
আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বছর আমাকে বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ, উনি জেলখানায় আছে। খালেদা জিয়ার পরিবার একটি দরখাস্ত দিয়েছে, তুমি আইনের মারফতে খালেদা জিয়াকে ছেড়ে দাও। তখন খালেদা জিয়াকে দুইটি শর্তে আমরা ছেড়ে দিলাম। প্রথম শর্ত হলো, তিনি বিদেশ যেতে পারবে না দ্বিতীয় শর্ত হলো তিনি বাসায় থেকে চিকিৎসা নিতে হবে।
আইনমন্ত্রী আনিসুল আরও বলেন, খালেদা জিয়ার অন্যায় এত গভীর যে, সে এতিমের টাকা মেরে দিয়েছে এ জন্য বিচারিক আদালত ৫ বছরের জায়গায় ১০ বছরের সাজা দিয়েছে। উনি এবং ওনার ছেলেরা দুস্থদের টাকা মেরে দিয়েছে সেখানেও বিচারিক আদালত তাকে সাত বছরের সাজা দিয়েছে। এত কিছুর পরেও মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাহী আদেশে দণ্ডাদেশ স্থগিত রেখে মুক্তি দিয়েছে। উনি চিকিৎসা করাচ্ছেন।
আইনমন্ত্রী বলেন, মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্বাহী আদেশে মুক্তি দেওয়া হয়েছে দণ্ডাদেশ স্থগিত রেখে। তিনি চিকিৎসা করাচ্ছেন। এখন বলে বিদেশে যেতে দিতে হবে। কথায় আছে, দাঁড়াতে দিলে বসতে চায়, বসতে দিলে শুতে চায়। আর শুতে দিলে ঘুমাতে চায়।
এ সময় আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোমানা আক্তার, উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক  জয়নাল আবেদিন, আখাউড়া পৌর মেয়র ও যুবলীগের আহ্বায়ক  তাকজিল খলিফা কাজল, কসবা উপজেলা চেয়ারম্যান রাশেদুল কাউসার ভূইয়া জীবন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিম ভূঁইয়া, আওয়ামী লীগ নেতা মনির হোসেন বাবুলসহ উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মহিলা সংরক্ষিত আসনে সদস্য, মেম্বার পদ প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।