পাহাড়তলী বধ্যভূমির জন্য বরাদ্দকৃত জমি উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

ডেস্ক রিপোর্টঃ চট্টগ্রাম সিটির পাহাড়তলী বধ্যভূমির জন্য বরাদ্দকৃত জমি উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) নাট্যকলা বিভাগের অতিথি শিক্ষক নাট্যজন মোস্তফা কামাল যাত্রা।

শনিবার (১১ ডিসেম্বর) গণ মাধ্যমে পাঠানো এক খোলা চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেন, সরকারী জমিতে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) অনুমোদনহীন ভবন নির্মাণ করে শিক্ষা বাণিজ্য পরিচালনাকারী এবং দেশের সর্ববৃহত বধ্যভূমির জন্য বরাদ্দকৃত এক দশমিক সাত একর জমি দখল করে শহীদদের স্মৃতির প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শনের মাধ্যমে স্বাধীনতা বিরোধী অবস্থান গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি চট্টগ্রামকে (ইউএসটিসি) বিচারের আওতায় আনার দাবির প্রতি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সব দেশপ্রেমিক জনসাধারণের ঐক্য প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে চট্টগ্রামের সুশীল সমাজ ও মুক্তিযোদ্ধাদের রহস্যজনক নিরবতা দুঃখজনক।’

চিঠিতে মোস্তফা কামাল যাত্রা আরো বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে এ অনভিপ্রেত পরিস্থিতি হতাশা ব্যাঞ্জক। পাহাড়তলী বধ্যভূমি প্রকল্প বাস্তবায়নে সুপ্রিম কোর্টের রায় কার্যকর করায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ভূমিকাও বোধগম্য নয়।’ এ অবস্থায় আগামী ১৪ ডিসেম্বরের আগে পাহাড়তলী বধ্যভূমির জন্য বরাদ্দকৃত এক দশমিক সাত একর জমি ইউএসটিসির কবল থেকে উদ্ধারের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন এ নাট্যজন।