পানাহার আয়োজনে সতর্কতার বিষয় অস্বীকার বরিসের

আন্তজার্তিক ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পানাহার আয়োজন করেন। এ নিয়ে জল আরও ঘোলা হচ্ছে। এ আয়োজন করা হলে করোনাভাইরাসের মহামারি ঠেকাতে আরোপিত বিধিনিষেধ ভঙ্গ হবে—তাকে দেওয়া এমন সতর্কবার্তা পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন।

যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, নর্থ লন্ডনের একটি হাসপাতালে বরিস জনসন বলেছেন, ‘করোনার বিধিনিষেধ সম্পর্কে আমাকে কেউ সতর্ক করেননি। কেউ সতর্ক করলে আমার এটা মনে থাকত।’

তবে বরিসের সাবেক উপদেষ্টা ডোমিনিক কামিংস ভিন্ন কথা বলেছেন। কামিংস বলেছেন, বরিস জনসনকে সতর্ক করেছিলেন তিনি। বরং উল্টো অভিযোগ এনে তিনি বলেছেন, বরিস আইনপ্রণেতাদের এ সম্পর্কে বিভ্রান্ত করেছেন।

বরিস জনসনকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, তিনি আইনপ্রণেতাদের বিভ্রান্ত করে থাকলে পদত্যাগ করবেন কি না। এ প্রশ্নের জবাবে বরিস বলেন, দেখা যাক, তদন্ত প্রতিবেদনে কী আসে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে, ডাউনিং স্ট্রিটে, পানাহারের আয়োজন করেছিলেন বরিস জনসন। ২০২০ সালের ২০ মে এ আয়োজন করা হয়। ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের বাগানে আয়োজিত যুক্তরাজ্যের শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তাদের ওই আসরে বরিস জনসন ও তার স্ত্রী ক্যারি সিমন্ডস উপস্থিত ছিলেন। ওই সময় যুক্তরাজ্যে এমন আয়োজন আইনত নিষিদ্ধ ছিল। খবরটি প্রকাশ্যে আসার পর এ নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বরিস। আর এ তদন্ত করছেন সু গ্রে। এ প্রতিবেদন এখনও প্রকাশ করা হয়নি।