পরীক্ষায় বসল এইচএসসির ১৪ লাখ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাকালে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে আজ বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) থেকে শুরু হলো এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা। পরীক্ষায় ১৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৯০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেবেন। তাদের মধ্যে ছাত্র ৭ লাখ ২৯ হাজার ৭৩৮ এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৬৯ হাজার ৯৫২ জন। গত বছরের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ৩৩ হাজার ৯০১ জন।

এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বচনিক বিষয়ের প্রথম ও দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা নেওয়া হবে। বাংলা, ইংরেজির মতো আবশ্যিক বিষয়গুলোতে পরীক্ষা না নিয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে। এইসএসসির ক্ষেত্রে জেএসসি ও এসএসসির ফলাফলের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের আবশ্যিক বিষয়গুলোর নম্বর দেওয়া হবে। এসব বিষয়ে কোনো অ্যাসাইনমেন্ট নেওয়া হয়নি।

শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুক্ষরায় নজর দিয়ে এবার বাড়তি প্রস্তুতি নিয়েছে কেন্দ্রগুলো। পরীক্ষার জন্য আজ থেকে সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রশ্নফাঁস রোধে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নজরদারি থাকছে। মহামারি করোনায় পরীক্ষার আসন বিন্যাস ও প্রশ্নপত্রেও এসেছে পরিবর্তন। ইংরেজি ‘জেড’ বর্ণের আকারে একটি বেঞ্চে বসবে একজন পরীক্ষার্থী। পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা।

এবার সাধারণ নয়টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি পরীক্ষা অংশ নেবে ১১ লাখ ৩৮ হাজার ১৭ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র ৫ লাখ ৬৩ হাজার ১১৩ এবং ছাত্রী ৫ লাখ ৭৪ হাজার ৯০৪ জন। মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষা দেবে ১ লাখ ১৩ হাজার ১৪৪ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র ৬১ হাজার ৭৩৮ এবং ছাত্রী ৫১ হাজার ৪০৬ জন। এইচএসসি (বিএম/ভোকেশনাল) পরীক্ষা দেবে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৫২৯ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ৪ হাজার ৮২৭ এবং ছাত্রী ৪৩ হাজার ৬৪২ জন।