নড়াইলে ধাওয়া পাল্টা অফিস ভাংচুর এর মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ৪র্থ ধাপের ইউপি নির্বাচন

সাজ্জাদ তুহিন নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া নির্বাচনী প্রচার প্রচারণার অফিস ভাংচুর এর মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ২৬ ডিসেম্বর লোহাগড়া উপজেলার  ৪র্থ ধাপের ইউপি নির্বাচন।

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ও প্রতীক বরাদ্দের পরপরই শুরু হয়েছে এ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া অফিস ভাংচুর এর ঘটনা। আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে জেলা পুলিশ প্রশাসন সর্বদাই কাজ করে যাচ্ছেন। এর ভিতর দিয়েই ঘটছে এসকল নির্বাচন সহিংসতার ঘটনা।

অভিযোগ উঠেছে বিদ্রোহী প্রার্থী দের বিরুদ্ধে, নলদী,লাহুড়িয়া, জয়পুর লোহাগড়া, ইতনা,মল্লিকপুর, দিঘলিয়া কাশীপুর এসব ইউনিয়নের নৌকা প্রতিক প্রার্থীর উপর হামলার মামলা হুমকি ধামকির দিয়ে নির্বাচন কে প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে।

আবার একই অভিযোগ এ সকল ইউনিয়নের বিদ্রোহী সতন্র চেয়ারম্যান প্রার্থী দের। এরা বলছেন সরকার দলিয়ো মনোনয়নে নৌকা প্রতিক প্রার্থীররা পরাজয় হবে বলে নিজেরাই নিজেদের প্রতিপক্ষ বানিয়ে প্রচার প্রচারণার অফিস ভাংচুর করে দায় চাপানোর চেষ্টা করছে ওই সব নৌকা প্রতিক প্রার্থীররা।

এমনকি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। যাতে করে বিদ্রোহী বা সতন্ত্র প্রার্থীরা প্রশাসনিক চাপের মুখে নির্বাচন ছেড়ে পালিয়ে যায়। এবিসয়ে লোহাগড়া জয়পুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আক্তার হোসেন বলেন, আমি দীর্ঘদিন এই ইউনিয়নে সততা নিষ্ঠার সাথে একজন সফল চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করা আসছি।

আমার বিরুদ্ধে নৌকা প্রতিক প্রার্থীর যে অভিযোগ তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ভিত্তি। নির্বাচনে নৌকা প্রতিক প্রার্থীর পরাজয় হবে ভেবে আমার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা ভিত্তিহীন অভিযোগ আনা হয়েছে। আমি এ ঘটনার তিব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। এবং জেলা পুলিশ প্রশাসনের তদন্ত সাপেক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করতে আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।