নড়াইলে কাশীপুর চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ মতিয়ারের বিরুদ্ধে আচারবিধি লংঘনের অভিযোগ

সাজ্জাদ তুহিন নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলে নির্বাচন কমিশন কে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে নির্বাচন আচরণবিধি লংঘন করে প্রকাশ্য দিবালোকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডর মত ভয়ভীতি প্রদর্শনে লগী বৈঠা নিয়ে ভোট প্রচারণায় কাশি পুর ইউনিয়নের নৌকা প্রতিক সমর্থিত প্রার্থী শেখ মতিয়ার রহমান এর বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে।
১৯ ডিসেম্বর রবিবার দুপুর বারোটার দিকে লোহাগড়া কাশিপুর সরজমিন ঘিরে এসব আচারবিধি ভঙ্গের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। জানা গেছে, নড়াইল লোহাগড়া উপজেলার ৫ম ধাপে ২৬ ডিসেম্বর নির্বাচন একের অধিক প্রার্থী হওয়ায় এবং এলাকার নিরীহ ভোটারদের সরলতার সুযোগ নিয়ে আওয়ামীলীগের দলিয়ো ক্ষমতার প্রভাব বিস্তার করে পুলিশ প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশন কে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে নির্বাচন প্রচারণা ও জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ মতিয়ার রহমান।
আচারবিধি ভংঙ্গ করে ৭শতাধিক ভ্যান ও ২ শতাধিত মটরসাইকেল নিয়ে শোডাউন করেন তিনি। এড়েন্দা বাজার থেকে শুরু হওয়া বহর টি ইউনিয়ন এর বিভিন্ন গ্রামের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। নৌকার প্রার্থী শেখ মতিয়ার রহমান এর মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি ফোন রিসিভ করেনি।
তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার সাধারণ ভোটারা জানান, বিগত দিনে দলিয়ো মনোনয়নে নৌকা প্রতিক প্রার্থী বিজয়ী হয়েও এলাকায় উন্নয়ন মুলক কোন কাজকর্ম করেন নাই। এমনকি পরিষদের সরকার কতৃক বরাদ্দকৃত চল্লিশ দিনের কর্মসূচি, বয়স্কভাতা,পঙ্গুভাতা, এলজি এসপি প্রকল্প,সহ বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগও রয়েছে অনেক। পাশাপাশি রয়েছে হামলা মামলার আইনি প্রকৃয়া।
উল্লেখ্য, আগামী ২৬ ডিসেম্বর রোববার লোহাগড়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোট গ্রহণ হবে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৫৮ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৪০৮ জন এবং সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৪৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ১২টি ইউপিতে মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৭১ হাজার ৬৯৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৮৫ হাজার ৯০৯ জন ও মহিলা ভোটার ৮৫ হাজার ৭৮৮ জন। ভোটকেন্দ্র ১১৬ টি, ভোটকক্ষ ৪৫৭ টি।