নিখোঁজের চারদিন পর পানিতে ভেসে উঠলো শিশুর মরদেহ 

ফরিদ মিয়া নান্দাইল ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের নান্দাইলে নিখোঁজের চারদিনের মাথায় পানিতে ভেসে উঠলো আরাফাত রহমান (৫) নামে শিশুর মৃতদেহ। ১১ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার এই ঘটনা ঘটে।

নিহত আরাফাত উপজেলার গাংগাইল ইউনিয়নের সুরাশ্রম গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আরাফাত গত ৮ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার বিকাল থেকে নিখোঁজ হয়।এরপর পরিবারের লোকজন, আত্নীয় স্বজন আপনজনদের বাড়িতে খোঁজ করে।আশপাশের পুকুর গুলোতে তল্লাশি করে। মাইকিং, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ সর্বত্র প্রচারণা করেও কোথাও কোন আরাফাতের সন্ধান মিলেনি। শিশুটি নিখোঁজের পরপরই  নান্দাইল মডেল থানায় সাধারণ ডাইরি করে তার পরিবার।

শিশুটির সম্পর্কে মামা আল-আমীন জানান, নিখোঁজের দিন বিকালে বাড়ির অন্য শিশুদের সাথে খেলতে বের।খেলা শেষে  সবাই ফিরে আসলেও আরাফাত ফিরে না আসায় তার মা শিশুদের কাছে আরাফাতের সন্ধান জানতে চায়। অন্য শিশুরা জানায় আরাফাত আমাদের থেকে অন্য কোন দিকে চলে গেছে। এরপর থেকেই খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি পরিবার।

আল-আমীন আরও জানায়,আজ  সকালে একজন বাড়ির পূর্ব পশ্চিম কোণের দিকে নতুন একটি পুকুরে দিকে হাঁটতে বের হলে। সে পুকুরে আরাফাতের লাশ ভাসতে দেখে চিৎকার দেয়। তখন বাড়ির লোকজন পানিতে নেমে উপরে তোলে আনে।উল্লেখ্য যে পুকুরটিতে লাশ পাওয়া গেছে সেটা নতুন পুকুর হওয়ায় সেটাতে খোঁজ করেনি তার পরিবার ।

এবিষয়ে নান্দাইল মডেল থানার ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, পরিবারের পক্ষে কোন অভিযোগ না থাকায়, তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের জন্য  অনুমতি দেওয়া হয়েছে।