নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে চাঞ্চল্যকর শিশু ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক: ১৩ বছরের এক মেয়ে শিশুর ধর্ষণ মামলার আসামী সেলিম মিয়া (৩২) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল। গ্রেফতারকৃত আসামী  সাং-আগুয়ান্দী, থানা-আড়াইহাজার, জেলা-নারায়ণগঞ্জ পিতা-মৃত আবু মিয়ার ছেলে।

গত ১৯ নভেম্বর ২০২১ তারিখে নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার থানাধীন আগুয়ান্দী গ্রামে একটি শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। উক্ত ঘটনায় নামের এক যুবককে আসামী করে ধর্ষণের শিকার ভিকটিমের (১৩) মা বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী) ২০০৩; ৯(১) ধারায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন,

যার মামলা নং-১৭, তারিখ-১৯/১১/২০২১। ধর্ষণের শিকার শিশু (১৩) স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী। এই ঘটনা জাতীয় ও স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ আকারে প্রকাশিত হয়, যা এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে।

উল্লেখিত বিষয়ে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি সংগ্রহসহ আসামীদের গ্রেফতারে র‌্যাব-১১ এর একটি গোয়েন্দা দল ছায়া তদন্ত শুরু করেন। এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২৩ নভেম্বর ২০২১ তারিখে র‌্যাব-১১ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে উক্ত চাঞ্চল্যকর শিশু ধর্ষণ মামলার একমাত্র আসামী সেলিম মিয়া (৩২), পিতা-মৃত আবু মিয়া, সাং-আগুয়ান্দী, থানা-আড়াইহাজার, জেলা-নারায়ণগঞ্জকে ডিএমপি ঢাকার ওয়ারী থানাধীন ভগবতী ব্যানার্জী রোড এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করে। ভিকটিম স্থানীয়
একটি মাদ্রাসার ২য় শ্রেণীর ছাত্রী। আসামী প্রায়ই ভিকটিমের মাদ্রাসায় আসা যাওয়ার
পথে উত্ত্যক্ত করতো। গত ১৯ নভেম্বর ভিকটিম তার মায়ের সাথে বাড়ীর পাশে একটি জমিতে ধান মাড়াইয়ের কাজ করছিলো। এ সময় ভিকটিম পাশের একটি তাঁত কারখানায় টিউবওয়েলের পানি পান করতে গেলে আসামী ভিকটিমকে ফাঁকা পেয়ে তাঁর পরনে থাকা ওরনা দিয়ে হাত পা বেঁধে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও মারধর করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম
প্রক্রিয়াধীন।