নরসিংদীর শিবপুরে ছেলে ও নাতির হাতে এক বৃদ্ধ খুন

নরসিংদী থেকে মোঃ মনসুর আলী শিকদার: নরসিংদীর শিবপুরে চুল কাটাকে কেন্দ্র করে ৯০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে আহত করেছিলেন তারই আপন নাতি ও ছেলে। দীর্ঘ ১১ দিন পর গত ২৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জোহর আলী ভূঁইয়া (৯০) নামের ওই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। নিহত জোহর আলী শিবপুর উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের বেতাগিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, গেল ১৬ জানুয়ারি দুপুরে নিহত বৃদ্ধ জোহর আলীর চুল কাটা নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়লে নাতি ও ছেলে। নিজ বাড়িতে তাকে চেয়ার দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। নিহতের নাতি নাহিদ ভূঁইয়া (২৫) ও ছেলে জসিম উদ্দিন ভূঁইয়ার (৫০) বিরুদ্ধে এধরণের লোমহর্ষক ঘটনার অভিযোগ উঠে। উক্ত ঘটনায় পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান যে, জোহর আলী তার চুল বড় রাখতে চাইছিলেন। এ নিয়ে গত ১৬ জানুয়ারি দুপুরে নাতি নাহিদ ভূঁইয়ার সঙ্গে দাদা জোহর আলীর কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে নাহিদ তার বাবা জসিম উদ্দীন ভূঁইয়াকে ডেকে আনেন। এ সময় উত্তেজিত অবস্থায় বৃদ্ধ দাদাকে প্লাস্টিকের চেয়ার দিয়ে আঘাত করেন নাহিদ। একই সময়ে জসিম উদ্দীনও হাতে থাকা কোদালের হাতল দিয়ে তার বাবার তলপেটে আঘাত করেন। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

আহত অবস্থায় ওই বৃদ্ধকে পার্শ্ববর্তী বেলাব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠান। সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান স্বজনেরা।

পরবর্তীতে তাকে নারায়ণগঞ্জের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রেখে বেশ কয়েকদিন চিকিৎসা দেওয়া হলে গত ২৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেলে উক্ত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। রাত ৮টায় শিবপুর থানা পুলিশ নিহত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।