নড়াইল লোহাগাড়া ইউনিয়নে পরিষদের ৪নং ওয়াডের রতন মেম্বার এর বিরুদ্ধে বিস্তার অভিযোগ

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইল লোহাগড়া উপজেলার ৭ নং লোহাগড়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত ৪ ওয়ার্ড মেম্বার রতন এর বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে।

গত ২৬ ডিসেম্বর ৫ম ধাপের নির্বাচনে আপেল প্রতিক নিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, এখনো শপথ গ্রহণ করেননি কিন্তু রতন মেম্বার ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও তার সমর্থকদের অভিযোগের শেষ নেই।

৩০ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, রতন মেম্বার পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আনারস প্রতীকের সমর্থক ছিলেন তাই যারা আনারস প্রতীকের বিরুদ্ধে নৌকা প্রতীকের কাজ করেছে বলে তাদের উপর রতন মেম্বারের সমর্থকরা হামলা ও মারধরের করেছ বলে অভিযোগ করেছেন নৌকা সমর্থকরা ।

এসময় নৌকা প্রতীকের সমার্থক সাব্বির কাজী তার   অভিযোগ বলেন, গত ২৮ ডিসেম্বর রতন মেম্বার ও তার সামর্থ্যক পুলিশ সদস্য মেহেদী, আজিজুর, ইরাজ সহ ৮থেকে ১০ জন আমি সহ আমার পরিবারের উপর হামলা করে। আমাকে কুপিয়ে ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে এবং আমার মামা মামিকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে এখন আমরা লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছি।

অপরদিকে রতন মেম্বারের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মুর্শিদ আলম অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনী প্রতিহিংসার কারণে রতন মেম্বার তার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে আমার কর্মী-সমর্থকদের মারধর করে এবং আমার দোকানে অগ্নিসংযোগ করে।

মুচড়া গ্রামের তৈয়বুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, রতন মেম্বারের সমর্থনে কাজ না করায় তার দোকান ভেঙে ফেলে এবং তার বোন ও ভগ্নিপতিকে মারধর করে। রতন মেম্বারের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মুর্শিদ আলম এর ভাই শিপন অভিযোগ করে বলে রতন মেম্বারের  কর্মী-সমর্থকরা আমার বাড়ি গেইট ভেঙে ফেলেছে।

এলাকার প্রত্যক্ষদর্শী মহিলারা বলেন, রতন মেম্বার আজিজুর, ইরাজ ও  পুলিশ সদস্য মেহেদী সহ কিছু সংখ্যক কর্মী সমর্থক নিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

এবিষয়ে রতন মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই ঘটনা নির্বাচন বা রাজনীতি নিয়ে নয়, এটা জায়গা জমি ও ঘর ভাঙ্গা নিয়ে চক্রান্ত করেছে। স্থানীয় লোকজন এবিষটি দেখে সমাধান করে দিয়েছে এখন কোন সমস্যা নেই।

তবে রতন মেম্বরের কাছে নৌকার সমার্থক সাব্বির ও তার মামা মামিকে মারার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ওখানে ছিলাম না আমি জানি না।

এ বিষয়ে লোহাগাড়া থানার ওসি আবু হেনা মিলন বলেন আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।