তালতলীতে  গাছের সাথে শত্রুতা, জমি দখলের চেষ্টা

কে.এম রিয়াজুল ইসলাম,তালতলী(বরগুনা)প্রতিনিধি: বরগুনার তালতলীতে শতাধিক কলাগাছ ও পুকুরের পাড় কেটে জমি দখলের চেষ্টা করেছেন মনির হাওলাদার নামের এক প্রভাবশালী। বসতবাড়িতে হামলা করে স্বর্ণ লুট ও ভাংচুর চালায়।

শনিবার(২৯ জানুয়ারী) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার শারিকখালী ইউনিয়নের বাদুগাছা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থাল পরিদর্শন করেন পুলিশ।

জানা যায়. গত ১৫ বছর আগে নুরজাহান নামের এক নারীর থেকে ২১ শতাংশ জমি ক্রয় করেন খবির হাওলাদার। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ওই জমিতে বসতবাড়ি করে ভোগ দখলে রয়েছেন খবির হাওলাদার। তিনি জমিতে পেয়ারা,লিচু,আমসহ কলাগাছের বাগান করেন। সম্প্রতি ঐ খতিয়ান থেকে মনির নামের এক ব্যক্তি বলেন তিনিও জমি ক্রয় করেছেন বলে দাবি করে তার দুই ভাই হেমায়েদ ও সলেমান এবং মনিরের স্ত্রীসহ ছয়-সাতজন দেশি অস্ত্র নিয়ে জমির শতাধিক কলাগাছ,লিচুগাছ,আম গাছ ও পুকুরের পাড় কেটে ফেলেন। এছাড়াও বসতবাড়িতে হামলা করে স্বর্ণ লুট ও ভাংচুর চালায়। পরে ঘটনা স্থান থানা পুলিশ পরিদর্শন করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী আলমাস হোসেন জানান, আমাদের চোখের সামনে মনির ও তার দুই ভাইসহ ৬-৭ জন লোক খবিরের বাড়িতে হামলা করে শতাধিক কলাগাছ ও বিভিন্ন জাতের ফলের গাছ কেটে ফেলে। এছাড়াও পুকুড়ের এক পাড় কেটে ফেলে। এমনকি পুকুরের মাছ লুট করে নেওয়ার হুমকি দিয়ে যায়। তবে স্বর্ণ লুটের বিষয়টি শুনেছি তবে তখন আমি ছিলাম না।

খবির হাওলাদার বলেন আমার ক্রয়কৃত জমিতে মনিরসহ তার ভাইয়েরা হামলা চালায় এসময় বিভিন্ন ফলজ, কলাগাছ কেটে ফেলে। আমার ঘর থেকে আমার স্ত্রীর একটি স্বণের চেইন ও কানের বালা লুটপাট করে নিয়ে গেছে।

এবিষয়ে মনিরের ফোনে একাধিকবার ফোন দিলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী শাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, খবর শুনে ঘটনাস্থালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।