জিয়া শিশু পার্কের নাম হলো সোহরাওয়ার্দী শিশু পার্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক: শাহবাগের সোহরাওয়ার্দী উদ্যান সংলগ্ন কেন্দ্রীয় শিশু পার্কের নাম এখন থেকে ‘হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী শিশু পার্ক’। পূর্বে এর নাম ছিল ‘শহীদ জিয়া শিশু পার্ক’।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) একাদশ বোর্ড সভায় এ নামকরণের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়। বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

রাজধানীর ঐতিহাসিক রমনা পার্কে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) ১৯৭৯ সালে এটি ‘শহীদ জিয়া শিশু পার্ক’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। এই স্থানে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীও এখানে আত্মসমর্পণ করেছিল। একই স্থানে স্বাধীনতার পর মুক্তিযুদ্ধে সহায়তার জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে সংবর্ধনা জানানো হয়েছিল। অভিযোগ করা হয়, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি মুছে দিতেই এখানে শিশু পার্ক নির্মাণ করা হয়েছিল।

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা স্তম্ভ নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। এরমধ্যে হাইকোর্টের এক রায়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে স্বাধীনতা পরবর্তী স্থাপনা স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা স্তম্ভে তৃতীয় পর্যায়ের নির্মাণকাজ চলছে। এখানে ৭ই মার্চের ভাষণের স্থান, আত্মসমর্পণের স্থান ও ইন্দিরা গান্ধীর ভাষণের স্থানে স্মৃতিস্তম্ভ ও ভাস্কর্য স্থাপন করা হচ্ছে। শিশু পার্কটিও থাকছে সেখানে। শিশু পার্ক আধুনিকায়নের জন্য আলাদা প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে বলে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।