জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হলেন বিদিশা এরশাদ

ইমন হোসাইনঃ
বিদিশা এরশাদকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা হয়েছে অদ্য ৪ নভেম্বর ২০২১ প্রেসিডেন্ট পার্ক বারিধারা ঢাকা- জাতীয় পার্টি পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার উদ্যোগে আয়োজিত প্রেস কনফারেন্সে পার্টির মুখপাত্র নীলফামারী ১ আসনের সাবেক এমপি জাফর ইকবাল সিদ্দিকি পার্টিকে গতিশীল করার লক্ষ্যে গত ৩১ নম্ভেবর-২১ তারিখে পার্কের পার্টিরে স্টিয়ারিং কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ গুরুতর অসুস্থ থাকায় পার্টির কার্যক্রমকে বেগবান করার জন্য পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান বিদিশা এরশাদ কে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনের ঘোষণা করেন।

প্রেস কনফারেন্সে উপস্থিত জাতীয় পার্টির পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার সর্বস্তরের নেতাকর্মীর প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান বিদিশা এরশাদ এবং দায়িত্ব পালনের জন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি এসময় দেশবাসীকে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বক্তব্য রাখেন। প্রেস কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন পার্টির কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট কাজী রুবায়েত হাসান, যুগ্ম মহাসচিব মেজর অবসরপ্রাপ্ত সিকদার আনিসুর রহমান, এডভোকেট শোয়েব আহমেদ, কর্নেল অবসরপ্রাপ্ত শাহজাহান সিরাজ,অ্যাডভোকেট এম এ ওয়াদুদ দিদার, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নাফিজ মাহবুব, কেন্দ্রীয় সদস্য উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জিয়াউল হক সরকার, শেখ রুনা, জুলিয়া আক্তার মীরা প্রমূখ ।সভায় বেগম রওশন এরশাদ এমপির আশু রোগমুক্তি কামনা করা হয়। সভার শুরুতে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সফল রাষ্ট্রনায়ক পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে বিদিশা এরশাদ বলেন সম্প্রতি তিনি সিলেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও চট্টগ্রামে সাংগঠনিক সফরে গিয়ে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীর ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন এবং সারা বাংলাদেশের ৬৪ জেলার জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা তাকে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী অবস্থায় ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন ।তিনি নেতাকর্মীদের আহবানের প্রতি সম্মান জানিয়ে শীঘ্রই বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা ও সাংগঠনিক কর্মসূচি ঘোষণা করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোট ভুক্ত হয়ে অংশগ্রহণ করার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করেন।

বিদিশা এরশাদ এর বক্তব্যে বলেন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্ম শত বার্ষিকী বৎসরে সবাইকে আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা। জাতীয় পার্টি পুনর্গঠন কমিটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব কাজী মামুনুর রশিদ আমার উপরে আরেকটি গুরু দায়িত্ব অর্পণ করলেন আজ ৪ঠা নভেম্বর। ইনশাআল্লাহ আপনাদের সবাইকে নিয়ে আজকে থেকে আমার পথ চলা আরো বেগবান হবে। আপনারা জানেন এরিক এরশাদ , কাজী মামুন ও আমি ম্যাডাম রওশন এরশাদ কে সিএমএস হসপিটালে দেখতে গিয়েছিলাম। আপাকে আমি কথা দিয়ে এসেছি পল্লীবন্ধু ও উনি যে ভাবে জাতীয় পার্টি কে ভালোবাসতেন আমিও ঠিক সেই ভাবেই জাতীয় পার্টি পুনর্গঠন প্রক্রিয়া মাধ্যমে সারা দেশে কাজ করব ।

তিনি আরো বলেন জাতীয় পার্টি নেতাকর্মীরা যারা হতাশ হয়ে গিয়েছিলেন পল্লী বন্ধুর মৃত্যুর পর, তাদের কে আবার পুনর্জীবন, পুনরুদ্ধার করা হবে আমার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। আপনারা জানেন ইতিমধ্যে আমি সিলেট, চট্টগ্রাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া ঘুরে এসেছি এবং অভূতপূর্ব সাড়া পেয়েছি সব জায়গায়। নতুন করে যেন প্রাণ ফিরে পাচ্ছে জাতীয় পার্টি নেতা কর্মীদের মাঝে আবার ।দেশ গড়ার লক্ষ্যে স্বাধীনতার স্বপক্ষের দলগুলোকে একসাথে নিয়ে একটি শক্তিশালী গণতান্ত্রিক প্লাটফ্রম তৈরি করতে চান তিনি এবং সেই লক্ষ্যে তিনি ডাক দিতে চাই ছোট-বড় সমস্ত বিরোধী দল গুলোসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা তিনি কামনা করছেন।