ছাদ থেকে ফেলে ব্যবসায়ীকে হত্যাচেষ্টা, গ্রেফতার ৬

ইমন হোসেন: চাঞ্চল্যকর ও আলোচিত রাজধানীর ফুলবাড়ীয়ার জাকের সুপার মার্কেটের ছাদ থেকে ফেলে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় প্রধান আসামী ফিরোজসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

গতকাল (৫ ফেব্রুয়ারি) নরসিংদী, গাজীপুর ও রাজধানীর গুলিস্তান এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) বিকালে কাওরান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন এ তথ্য জানান র‍্যাব-১০ এর এ্যাডিশনাল ডিআইজি অধিনায়ক (পরিচালক) মাহফুজুর রহমান।

তিনি বলেন, গত ২ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর ফুলবাড়িয়া জাকের সুপার মার্কেটে ক্ষমতার আধিপত্যকে কেন্দ্র করে রাকিব শেখ (৪৮) নামের একজনকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় ভিকটিমের ভাই বাদী হয়ে বংশাল থানায় ১৮ জনকে

এজহারনামীয়সহ  অজ্ঞাতনামা আরও ২০/৩০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। যা ইতোমধ্যে সংবাদ মাধ্যম ও সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ায় ঘটনাটি সারাদেশে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল (৫ ফেব্রুয়ারি) র‍্যাব সদর দপ্তর গোয়েন্দা শাখা ও র‍্যাব-১০ এর ৩টি আভিযানিক দল গাজীপুর ও রাজধানীর গুলিস্তান এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ফুলবাড়ীয়া জাকের সুপার মার্কেটের ছাদ থেকে ফেলে দিয়ে হত্যা চেষ্টার অপরাধে করা মামলার প্রধান আসামীসহ  ৬ জনকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ফিরোজ আহম্মেদ (৫৩), মো. হুমায়ুন কবির কিছু (৫৩), মাহমুদুল হাসান রাসেল (৪১), হাজী মোঃ ফরিদ ভূঁইয়া ও ছোট ফরিদ (৩৯),  মোঃ আলম শিকদার (৫০)।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, আসামী মো. ফিরোজ আহম্মেদ একজন সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ এছাড়া যাদের গ্রেফতার করা যায়নি এবং অজ্ঞাতনামা যারা রয়েছেন সবাই ফিরোজ খানের লোক।

তিনি আরও বলেন,ফিরোজ ফুলবাড়ীয়া সুপার মার্কেটে  আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তোলে।

ওই সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা ওই মার্কেটের ব্যবসায়ীদের থেকে বিভিন্ন হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে চাঁদা আদায় করত। চাঁদা দিতে কেউ অস্বীকার বা বাধা প্রদান করলে তার পেটুয়া বাহিনী দ্বারা তাদের মারধরসহ বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন করে চাঁদা আদায় করত বলে জানান এই কর্মকর্তা।