চট্টগ্রাম সিডিএর স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুলকে বদলী

জাহাঙ্গীর আলম চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল আলম চৌধুরীকে বদলি করেছে সরকার। জুডিসিয়াল কর্মকর্তা সাইফুলকে ফেনীর সিনিয়র সহকারী জজ হিসেবে বদলি করে বৃহস্পতিবার রাতে আদেশ জারি করেছে আইন ও বিচার বিভাগ।

প্রায় তিন বছর ধরে একই পদে দায়িত্বে থাকা সাইফুলকে সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ করে বদলি করা হয়েছে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।চট্টগ্রাম মহানগরের কাট্টলীর বাসিন্দা সাইফুল আলম চৌধুরী পড়াশোনা করেছেন চট্টগ্রামের বেসরকারি প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০১০ সালের ডিসেম্বরে আইনজীবী হিসেবে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতিতে তালিকাভুক্ত হন সাইফুল আলম চৌধুরী। কয়েক বছর পর তিনি বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। তবে ২০১৯ সালের আইনজীবী ডাইরেক্টরির ২৬৩৮ ক্রমিকে আইনজীবী হিসেবে সাইফুল আলম চৌধুরীর নাম ও মোবাইল নাম্বারও ছিল।

পরে ২০১৯ সালের ২৪ জানুয়ারি এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ইমারত নির্মাণ আইন, ১৯৫২সহ আরো বিভিন্ন আইনে অপরাধ বিচারের জন্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা দেওয়া হয় সাইফুল আলম চৌধুরীকে। এরপর থেকে বিচারিক দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেক মানুষকে কারাগারে পাঠানোর পাশাপাশি নানা প্রশ্নের জন্মও দিয়েছেন তিনি।

সিডিএ’র স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের পাশাপাশি ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব নিয়ে নিয়ম না মেনে সীতাকুণ্ডের সিডিএ সিলিমপুর আবাসিক এলাকায় ৬০ বছরের পুরোনো লেক ভরাট করে ৫ কাঠার প্লট বরাদ্দ নিতে আবেদন করেন সাইফুল আলম চৌধুরী। ওই আবেদন সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ অনুমোদনও দেন। পরে বিষয়টি নিয়ে জানাজানি হলে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে ২০২০ সালের ২৬ আগস্ট সিডিএ’র সংশ্লিষ্টদেরকে কাগজপত্র নিয়ে তলব করে পরিবেশ অধিদপ্তর।

প্লটকাণ্ডের আগে ২০২০ সালের ৭ জুন সিডিএ’র সচিব পদে স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল আলম চৌধুরীকে দায়িত্ব দেওয়া নিয়ে সিডিএ’র বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলমের সাথে দেখা করে তাদের ক্ষোভের কথা জানান। বিধি অনুযায়ী উপসচিব ভারপ্রাপ্ত সচিবের দায়িত্ব পালন করার কথা থাকলেও নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল আলমকে দায়িত্ব দেওয়া হয় বলে তারা তখন অভিযোগ করেন। পরে সিডিএ’তে সচিব নিয়োগ হলে অতিরিক্ত দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াতে হয় সাইফুল আলম চৌধুরীকে।

এদিকে ২০১৯ সালের ৪ মে অনুষ্ঠিত প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ল’ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের (পুলা) নির্বাচনে সভাপতি পদে নির্বাচন করে সামান্য ভোটে হেরে যান সাইফুল আলম চৌধুরী। নির্বাচনে সভাপতি পদে ৪০৫ ভোট পান উচ্চ আদালতের আইনজীবী গাজী মু. সাদেকুল আলম। তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী সাইফুল আলম চৌধুরী পেয়েছিলেন ৩৮৯ ভোট। এবারও পুলার সভাপতি পদে নির্বাচন করার ঘোষণা নিজের বন্ধু-মহলে দিয়েছেন সাইফুল আলম চৌধুরী।