ঘোড়াঘাটে পায়ের রগ ও গলা কাটা অবস্থায় কিশোরের লাশ উদ্ধার

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে পায়ের রগ ও গলা কাটা অবস্থায় ৮ম শ্রেণীতে পড়–য়া রিশান (১৪) নামের এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত শনিবার উপজেলার কশিগাড়ী গ্রামের পাঁচ মাথা মোড়ের নিকট পরিত্যাক্ত হোটেল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, শনিবার (২৯ জানুয়ারী) সকাল সাড়ে ১১টায় স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু হাসান কবির সঙ্গীয় ফোর্স সহ ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। তিনি বিষয়টি হাকিমপুর-ঘোড়াঘাট সার্কেলের সিনিয়র এএসপি শরিফ আল রাজিবকে অবগত করলে তিনিও বেলা দেড়টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছেন।

এ হত্যাকান্ড ব্যাপারে সার্কেল শরিফ আল রাজিবের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, পূর্ব শত্রæতার জেরে এ হত্যা কান্ড সংঘটিত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ইতিমধ্যে সিআইডি ক্রাইম সিন ইউনিটকে অবগত করা হয়েছে। ময়না তদন্ত ও অধিকতর তদন্তেই হত্যাকান্ডের মোটিভ বেরিয়ে আসবে।

এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে নিহত রিশানের দাদী ফাতেমা খাতুন জানান, শুক্রবার রাত ১০ টায় রিশান সহ তার পিতা লিটন মন্ডল একসাথে ভাত খায়। সে সময় রিশানের নিকট একটি ফোন আসে। এরপর সে রাতেই বাড়ী থেকে বের হয়ে যায়। সারারাত বাড়ীতে না আসায় শনিবার সকালে লোক মারফত তার মৃত্যুর সংবাদ পায়। তবে ফাতেমা খাতুন জানান, তার ছেলে অর্থাৎ রিশানের পিতা লিটনের মেন্টাল সমস্যায় তার স্ত্রীকে মারধর করার কারনে গত দুই রাত থেকে স্ত্রী রমিছা খাতুন পাশের বাড়ী অর্থাৎ লিটনের চাচার বাড়ীতে রাত যাপন করে আসছে। তার দাদী আরও জানান, রিশান হাটেলে কাজ করে পড়াশুনার খরচ যোগাতো। সে স্থানীয় আল হেরা ইসলামী প্রি-ক্যাডেট স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র ছিল।

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু হাসান কবির জানান, সিআইডি ক্রাইম সিন ইউনিট এসে আলামত সংগ্রহের পর লাশ ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মর্গে প্রেরণ করা হবে। এছাড়া এই ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।