গাজীপুরে চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

জি.আর.আকন্দ, গাজীপুর: গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গীতে কারখানায় চাঁদা দাবির মামলায় আলোচিত ছাত্রলীগ নেতা রিপন’কে গ্রেপ্তারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ৫৫ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন এলাকায় হোন্ডা রিপন (২৮) নামেই পরিচিত। চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেপ্তারের পর সোমবার (৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় তাকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে ওয়ার্ড শাখা ছাত্রলীগ। টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহ আলম জানান, রিপন গত শনিবার সকালে টঙ্গীর মিলগেট এলাকায় অবস্থিত হামিম গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ক্রিয়েটিভ কালেকশন লিমিটেডে’র জিএমের কাছে মোবাইল ফোনে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। পরে দলবল নিয়ে মোটরসাইকেলে কারখানায় গিয়ে আবারো চাঁদা দাবি করেন। রবিবার সকালের মধ্যে টাকা না দিলে মেরে লাশ গুম করার হুমকি দেন। এ ঘটনায় কারখানার জিএম কামাল হোসেন জনি বাদি হয়ে রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে হোন্ডা রিপনসহ তার তিন সহযোগীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। রবিবার দুপুরেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বিকেলে তাকে মহানগর মুখ্য হাকিমের আদালতে পাঠানো হলে বিচারক জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তিনি আরো বলেন, রিপনের বিরুদ্ধে চুরি, ছিনতাই, অপহরণ, মাদকসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। এদিকে গ্রেপ্তারের পর সোমবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগের পদ থেকে রিপনকে সাময়িক অব্যাহতি দেয় ওয়ার্ড ছাত্রলীগ। ৫৫ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি দ্বীন মোহাম্মদ নিরব জানান, সংগঠনের শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে থানা ছাত্রলীগের নির্দেশে রিপনকে তার পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।