কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প পুরো দক্ষিণ চট্টগ্রামে বিপ্লব ঘটাবে

বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনে এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাইফুল আলম মাসুদ

জাহাঙ্গীর আলম ব্যুরো প্রধান চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বাঁশখালীর গন্ডামারায় বাংলাদেশ সরকারের সহযোগিতায় চীন এবং দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান এস আলমের যৌথ উদ্যোগে নির্মিতব্য ১৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন এসএস পাওয়ার প্লান্টের নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ সাইফুল আলম মাসুদ।

শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) সকালে হেলিকপ্টার যোগে প্রশাসন ও প্রকল্পের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করেন তিনি।

এ সময় তিনি বলেন, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্য যে সকল পদক্ষেপ নিয়েছেন, তার মধ্যে চীন এবং বাংলাদেশ সরকারের যৌথ প্রজেক্ট বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প একটি। এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে বাঁশখালীসহ পুরো দক্ষিণ চট্টগ্রাম আলোকিত হবে। প্রকল্পটি বেসরকারি পর্যায়ে হলেও চীন-বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ সম্পদ।

পরিদর্শনকালে এ সময়এস আলম গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুস সামাদ লাভু, এস. এস পাওয়ার প্লান্টের কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের পরিচালক (কারিগরি) শহিদুল আলম, এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যানের বড় ছেলে ও ইউনিয়ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান আহসানুল আলম মারুফ, এস আলম গ্রুপের বর্তমান ওয়ান অফ দ্যা ডাইরেক্টর মুহিত আলম, সিপিআই নির্বাহী পরিচালক সুব্রত কুমার ভৌমিক, এস.এস.পাওয়ার প্যাল্টের প্রধান সমন্বয়ক মোস্তান বিল্লাহ আদিল, এস আলম গ্রুপের বিমল কান্তি মিত্র, আশীষ কুমার নাথ, বাবু মিল্টন, প্রকল্প সমন্বয়কারী চীফ কো-অর্ডিনেটর ফারুক আহমেদ, বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন, এস এস পাওয়ার পয়েন্টের সি এফও গন্ডামারা ইউপির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ লেয়াকত আলী, আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল মোস্তফা সংগ্রাম সহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বাঁশখালীর এই এসএস পাওয়ার প্ল্যান্টের (এস আলম কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প) নির্মাণ কাজ ২০২২ সাল নাগাদ শেষ হবে বলে সংশ্নিষ্ট সূত্রে জানা যায়।