কেরানীগঞ্জে ৭০টি সামাজিক সংগঠনের মিলন মেলা

এনামুল হাসান
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ঢাকার কেরানীগঞ্জে ৭০টি সামাজিক ও সেচ্ছাসেবী সংগঠনের মিলন মেলা  অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) কেরানীগঞ্জের শাক্তা ইউনিয়নের কোনাখোলা সংলগ্ন শরীফ প্রোপার্টিজ এলাকায় এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। মেলার আয়োজন করেন ছায়াতল সংগঠনের সভাপতি ও কেরানীগঞ্জ ডক্টরস এসোসিয়েশন এর আহবায়ক ডাঃ হাবিববুর রহমান হাবিব।
অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে ১৯৭১ এ স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ ও উপস্থিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা হয়। পরে মেলায় আংশগ্রহনকারী সংগঠনের সদস্য এবং আগত শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিদুল হক সাহিদ, কেরানীগঞ্জ উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি বেদৌরা আলী শিমু, প্রকৌশলী জহির আরিফ প্রমুখ। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে বক্তব্য প্রদান করেন মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদ। পরে অতিথিরা মেলা পরিদর্শন করে সংগঠনগুলির কার্যক্রম সম্পর্কে খোঁজখবর নেন।
মেলায় কেরানীগঞ্জ ব্লাড ডোনার্স, প্রথম আলো বন্ধুসভা, নতুন কুড়ি, বিডি ক্লিন, কেরানীগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর, মানবাতার হাতসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলো তাদের কার্যক্রম সংবলিত প্লেকার্ড, ফেস্টুন ও ব্যানারে আলাদাভাবে স্টল নিয়ে বসেন। মেলায় আগত দর্শনার্থীদের সেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো তাদের কার্যক্রম, উদ্দেশ্য, অভিজ্ঞতা ও সফলতার নানা দিক তুলে ধরেন।
বিডি ক্লিন কেরানীগঞ্জ শাখার তথ্য প্রযুক্তি সমন্বয়ক তামান্না ইসলাম বলেন, কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ক্যাম্পেইন ও আমাদের শাখার এক বছর পূর্তি উপলক্ষে আমরা এ মেলায় অংশগ্রহণ করেছি। মেলার প্রায় ৭০টি সংগঠনের স্টলে ১টি ঝুড়ি, ৫ জোড়া গ্লাভস ও ৫ জোড়া মাস্ক বিতরণ করেছি। এছাড়া ক্যাম্পেইন ও আশপাশ এলাকায় আমাদের সংগঠনের সদস্যরা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাদেশকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলা। এ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে আমরা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে মানুষের মাঝে সচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছি।
কেরানীগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর এর এডমিন আমজাদ হোসেন সেনান বলেন, কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ক্যাম্পেইনে সংগঠনগুলোর মিলনমেলা হয়েছে। এতে বিভিন্ন সংগঠন তাদের কার্যক্রম তুলে ধরেছে। মেলায় আসা দর্শনার্থীদের মাঝে সামাজিক কার্যক্রম সম্পর্কে সচেতনতামূলক প্রচারণা করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন,  এ মিলনমেলার মাধ্যমে সংগঠনগুলো একে অপরের সাথে যুক্ত হয়ে সমাজের কল্যাণে অবদান রাখতে পারবে।