কেরানীগঞ্জে একটি ইউপির ফল ঘোষণা নিয়ে উপজেলা চত্বর থমথমে

এনামুল হাসান: রোববার (২৮ নভেম্বর) ঢাকার কেরানীগঞ্জে তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ভাবে শুরু হলেও তা শেষ হয়েছে নানা অনিয়ম আর বিশৃঙ্খলার অভিযোগের মধ্যদিয়ে। এছাড়াও একটি ইউপিতে গোলাগুলির ঘটনাও ঘটেছে। উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও আটটি ইউনিয়নে বিনা ভোটে আগে থেকেই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় বাকি তিনটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হয়েছে। এতে নৌকার প্রতিকে বাস্তা ইউনিয়নে আশকর আলী, শাক্তা থেকে হাবিবুর রহমান হাবিব চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। অপর ইউনিয়ন হযরতপুরে নানা বিশৃঙ্খলার কারণে এখনো ফল ঘোষণা করা হয়নি। তবে এই ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী আনোয়ার হোসেন আয়নাল ও ঘোড়া প্রতিকে হাজী মোঃ আলাউদ্দিন উভয় প্রার্থীই নিজেদের বিজয়ী দাবী করছে।
অনুষ্ঠানিক ভাবে ফল ঘোষণা না হওয়ায় সকালে উপজেলা চত্বরে অবস্থান নেয় আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত সভাপতি ও বিদ্রহী প্রার্থী আলাউদ্দিনের কর্মী সমর্থকরা। এসময় তারা ঘোড়া প্রতিককে জয়ী ঘোষণা করতে নির্বাচন অফিসের সামনে শ্লোগান দেয়। পরে নৌকার প্রার্থী আনোয়ার হোসেন আয়নালের স্বমর্থনে সরকারি ইস্পাহানি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ জালাল অপু, সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মিরাজুর রহমান সুমন ও নাজিম মেম্বারের নেতৃত্বে ছাত্রলীগ ও সেচ্ছাসেবকলীগ নেতারা মুখোমুখি অবস্থানে গেলে পুলিশ ও বিজিবির যৌথবাহিনি তাদের কে উপজেলা চত্বর থেকে সড়িয়ে দেয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত উভয় প্রার্থীর সমর্থকরা উপজেলার কাছাকাছি অবস্থান করছে। পুরো উপজেলা ঘিরে রেখেছে পুলিশ, বিজিবি সহ আইনসৃঙখলা বাহিনী।