কেন্দ্রের কমিটি না মানায় পদ স্থগিত হলো দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি মিঠু‘র

জাহাঙ্গীর আলম চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসবেক দলের সভাপতির পদ স্থগিত করা হয়েছে।

২৬ নভেম্বর শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের দপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পদ স্থগিত করার বিষয়টি জানানো হয়। এতে সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার কারণ উল্লেখ করা হয়।

কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের দফতর সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার কারণে স্বেচ্ছাসেবক দল চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা শাখার সভাপতি সাইফুদ্দিন সালাম মিঠু‘র পদ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে।’

জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে কেন্দ্রীয় কমিটির অনুমোদন করা কমিটি মেনে না নিয়ে দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল পাল্টা কমিটি ঘোষণা করে। নিয়ম অনুযায়ী জেলার আওতাধীন উপজেলা কমিটিগুলোর অনুমোদন দিবে। কিন্তু সাতকানিয়া উপজেলা ও পৌরসভা কমিটির অনুমোদন দিয়েছে স্বয়ং কেন্দ্র। কেন্দ্রের ঘোষিত সাতকানিয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। সে সাতকানিয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন তাঁতি লীগের সভাপতি। অবশ্য কমিটি ঘোষণার একদিন পর এক ভিডিও বার্তায় দেলোয়ার হোসেন তাঁর নাম স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটিতে দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। একই সাথে তিনি কমিটি থেকে অব্যাহতি নেওয়ার ঘোষণা দেন। ওই কমিটি স্থানীয় বিএনপি নেতা জামাল হোসেনের ইন্দনে হয়েছে দাবি করে এলাকায় ঝুাড়– মিছিল করে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা। মিছিল থেকে জামাল হোসেনকে বয়কট ঘোষণাও করেন তারা। অন্যদিকে কেন্দ্রের কমিটি ঘোষণার দিনই আরেকটি কমিটি ঘোষণা করে দক্ষিণ জেলা সে¦চ্ছাসেবক দল। মূলত পাল্টা কমিটি ঘোষণার কারণে সভাপতির পদটি স্থগিত করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে পদ স্থগিত হওয়া দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইফুদ্দিন সালাম মিঠু বলেন, আমার পদটি সাময়িক স্থগিত করেছে। কি কারণে সেটা জানি না। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের চোখে হয়তো আমার কোন ভুল-ত্রুটি চিল। যেটার জন্য পদটি স্থগিত করেছে। কাজ করতে গেলে তো ভুল-ত্রুটি হতে পারে। ওনারা অভিভাবক, যেটা ভাল মনে করেছেন সেটা করেছেন।

কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের এক দায়িত্বশীল নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলায় সাতকানিয়া ও পটিয়াতে কিছু ঝামেলা হয়েছে। কেন্দ্রের নির্দেশনা না মেনে কিছু কাজ সেখানে হয়েছে। যার কারণে জেলা সভাপতির পদটি স্থগিত করা হয়েছে। সেখানে কাউকে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দেয়া হতে পারে।