কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের বিশেষ অভিযানে প্রতারক চক্রের ৫ জন ভুয়া র‌্যাব গ্রেফতার

এ,জে, সুজন কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: সাম্প্রতিক সময়ে র‌্যাব কর্মকর্তা পরিচয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে চাকুরী দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে একটি প্রতারক চক্র চাকুরী প্রত্যাশী যুবকদের নিকট হতে বিপুল পরিমান টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এমন অভিযোগ পাওয়ার পর র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়ান্ড্রন লিডার মোহাম্মদ ইলিয়াস খানের নেতৃত্বে র‍্যাবের একটি বিশেষ অভিযানিক দল গোয়েন্দা তৎপরতা শুরু করে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২ ডিসেম্বর ২০২১ ইং তারিখ দুপুর আড়াইটার সময় র‍্যাব-১২ কুষ্টিয়া ক্যাম্পের একটি চৌকষ আভিযানিক দল কুষ্টিয়া শহরের কোর্টপাড়া রামচন্দ্র রায় চৌধুরী সড়কে অবস্থিত ধোঁয়া রেস্টুরেন্টে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে

প্রতারক চক্রের সদস্য মাগুরা জেলার শ্রীপুর থানাধীন কালীনগর এলাকার মৃত আরব আলী শেখের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩০), একই এলাকার বদিয়ার রহমানের তাজন হোসেন (৩২), ও কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালি বানিয়াপাড়া এলাকার মৃত শামসউদ্দিন প্রামানিকের ছেলে সাবান আলী অরফে ঘটক (৬৮) কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত সাইফুল ও তাজন নিজেদের র‍্যাব কর্মকর্তা পরিচয় দিতো বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

এ সময় আসামীদের নিকট হতে ১টি ভুয়া র‌্যাব আইডি কার্ড,৪টি মোবাইল ফোন, ৬টি সীমকার্ড ও নগদ-৬৪৩৫/- টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব আরও জানায়, গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা তাদের নিজেদের অপরাধ স্বীকার করে। আসামীদের নিকট হতে জানা যায় যে, ঢাকা জেলার দক্ষিনখান থানার অন্তর্গত আশকোনার একটি কম্পিউটার দোকান হতে তারা র‌্যাবের ভুয়া আইডি কার্ড তৈরী করেছে। এরপর আসামীদের সঙ্গে নিয়ে ঢাকায় গিয়ে তাদের দেওয়া তথ্যানুযায়ী ঐ কম্পিউটার দোকানে অভিযান পরিচালনা করে র‍্যাব।

এ সময় ঐ দোকানের কম্পিউটার হতে দুটি ভূয়া র‌্যাবের পরিচয়পত্র, সেনাবাহিনীর ভুয়া নিয়োগপত্র, চাকুরী প্রাপ্তির ভুয়া এসএমএস, ১টি মনিটর, ২টি সিপিইউ, ১টি প্রিন্টার, ১টি কীবোর্ড, ২ টি মোবাইল ফোন, ৪ টি সীমকার্ড সহ ভুয়া র‌্যাব আইডি প্রস্তুতকারক ঢাকা জেলার উত্তরখান থানার কাচকুরা এলাকার মৃত ইউনুস আলীর ছেলে এসএম জাহিদুল ইসলাম (২৮), ও ঢাকা জেলার দক্ষিন খান থানার আশকোন এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে কাজী শাহীন (৩০) গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে উদ্ধারকৃত আলামত সহ গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে কুষ্টিয়া জেলার কুষ্টিয়া মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে র‍্যাব-১২ কুষ্টিয়া ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়ান্ড্রন লিডার ইলিয়াস হোসেন খান বলেন, এই ধরণের প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্যদের বিরুদ্ধে অভিযান সচল রেখে প্রতারক মুক্ত সমাজ গঠনে র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া বদ্ধপরিকর। র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া’কে তথ্য দিন মাদক, অস্ত্র ও জঙ্গীমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে অংশ নিন।