কুষ্টিয়ার পাটিকাবাড়ীতে স্বতন্ত্রপ্রার্থীর কর্মীদের উপর নৌকার প্রার্থীর কর্মীদের হামলার অভিযোগ

এ,জে, সুজন কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ৮নং পাটিকাবাড়ি ইউনিয়নে নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা কালে গেল ২রা জানুয়ারি বেলা ১২টায় পাটিকাবাড়ি বাজার সংলগ্ন জোতপাড়ায় নৌকার প্রার্থী মো: সাহিদুর রহমানের কর্মীরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ রিজভী উজ্জামান কানুর কর্মীদের ওপর হামলা চালালে তার সাত থেকে আটজন কর্মী আহত হয়। এর মধ্যে চার থেকে পাঁচজন গুরুতর আহত থাকায় তাদের চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে আসার সময় পুনরায় ইউনিয়নের নলকোলায় সাহিদুর রহমানের কর্মীদের দ্বারা হামলার শিকার হয়। পরে পুলিশ প্রশাসনের সহায়তায় চিকিৎসার জন্য আহতদের কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয় । এ ব্যাপারে পাটিকাবাড়ি ইউনিয়নবাসীদের সাথে কথা বললে তারা জানান ইউনিয়নের জোতপাড়ায় নৌকার প্রার্থীর কর্মীরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ রেজভী উজ্জামান কানুর ঘোড়া মার্কা প্রতীকের কর্মীদের প্রচার মাইক ভাঙচুরসহ স্বতন্ত্রপ্রার্থীর কর্মীদের উপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর ৪ থেকে ৫ জন কর্মী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আরো জানান এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে নির্বাচন সুষ্ঠ হওয়ার পরিবেশ বিঘ্নিত হবে। পাটিকাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান জানান , নির্বাচনী প্রচার প্রচারণার মাঠ সকলের জন্য সমান হওয়া উচিত। এ ধরনের হামলা ও প্রভাব বিস্তার করে পরিবেশ অস্থিতিশীল কারীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন ।

এই হামলার ঘটনায় পাটিকাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী (ঘোড়া প্রতিক) শেখ রিজভী উজ্জামান কানু জানান, ঘটনার দিন বেলা ১২টার সময় পাটিকাবাড়ি বাজারসংলগ্ন জোতপাড়ায় ১. উজ্জল, পিতা: হক, ২ রিঙ্কু ,পিতা :ঘেটু, ৩. আরাফাত, পিতা: মামরা, সহ ১০-১২জন নৌকা প্রার্থীর কর্মী তার নির্বাচনী প্রচার কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় আহত কর্মীদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিতে গেলে ইউনিয়নের নলকোলায় আবার হামলার শিকার হয়। পরে পুলিশ প্রশাসনের সহায়তায় তাদেরকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ৩রা জানুয়ারি সোমবার ইউনিয়নের পরিবেশ শান্ত রাখার পাশাপাশি নিজের এবং তার কর্মীদের নিরাপত্তার জন্য ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ,ইবি থানা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

হামলার ঘটনা এবং অভিযোগ প্রসঙ্গে নৌকার প্রার্থী মোঃ সাহিদুর রহমান জানান, ঘটনার সময় তিনি নির্বাচনী প্রচারণায় ছিলেন। ইবি থানায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর অভিযোগ দায়ের প্রসঙ্গে তিনি আরো জানান,এটা তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। আর এ ধরনের ঘটনার প্রশ্রয় বা সমর্থন তিনি করেন না।

পাটিকাবাড়ি ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতায় স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ রেজভি উজ্জামান কানুর লিখিত অভিযোগ প্রসঙ্গে ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান রতন জানান, এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর অভিযোগ জিডি আকারে গ্রহণ করেছি এবং এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।