কক্সবাজারে মৎস্য উৎপাদনে যেকোনো সমস্যা সমাধানে সরকার প্রস্তুতঃ মৎস্য মন্ত্রী

দিদারুল আলম সিকদার, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি: মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম কক্সবাজার শ্রীম্প হ্যাচারী অব বাংলাদেশের সাথে মতবিনিময়কালে মৎস্য মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম  রেজাউল করিম বলেছেন মৎস্য সেক্টরের যেকোন সমস্যার সমাধানে মৎস্য মন্ত্রণালয় প্রস্তুত রয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা করোনাকালে মৎস্যজীবী ও সংশ্লিষ্টদের জীবন-জীবিকা যাতে বন্ধ না হয় সেজন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

এতেই সচল ছিল মৎস্য সেক্টর। তিনি আরো বলেন, আমরা সৌভাগ্যবান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মতো একজন নেতা পেয়েছি। যার নেতৃত্বে পুরো দেশ ও জাতি এগিয়ে যাচ্ছে। দেশপ্রেম এবং মানুষের প্রতি যার অগাধ ভালোবাসা রয়েছে। করোনার দুর্যোগকালে বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা আশাংকা করেছিল বাংলাদেশ টিকে থাকা কঠিন হয়ে যাবে। কিন্তু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে।

লকডাউন এর সময় বিদেশ থেকে খাদ্য আমদানি করতে হয়নি। তাঁর নেতৃত্বে বর্তমানে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে সর্বক্ষেত্রে। সরকার কক্সবাজারে আন্তর্জাতিক মানের একটি শুটকি উৎপাদন প্রকল্প ইতিমধ্যে গ্রহণ করেছে। আপনারা যারা মৎস্য সেক্টরের বিভিন্ন পর্যায়ে জড়িত আছেন বিশেষ করে পোনা উৎপাদন সেক্টরে আপনাদের প্রতি আমাদের আহবান আপনারা মানসম্মত পোনা উৎপাদন করুন।

রপ্তানিযোগ্য চিংড়ি বিভিন্ন দেশের চাহিদা মত রপ্তানি করার সুযোগ সৃষ্টি করুন। মন্ত্রী আরো বলেন বর্তমান সরকার জনগণের সরকার। আমরা যারা আছি সবাই মিলে সরকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বারবার বলেন ক্ষমতা শুধুমাত্র দায়িত্ব যা দেশের জন্য মানুষের জন্য সঠিকভাবে পালন করতে হয়। তিনি জাতির জনকের কন্যা হয়েও একদম সাদাসিধে জীবন যাপন করেন।

তিনি গতকাল কক্সবাজার হোটেল সী-গাল এ শ্রিম্প হ্যাচারী অব বাংলাদেশ “সেব” আয়োজনে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। শ্রীম্প হ্যাচারি অব বাংলাদেশের সভাপতি আশেক উল্লাহ রফিক এমপি’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নজিবুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ ইয়াছিন চৌধুরী।

অতিথির বক্তব্য রাখেন মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খন্দকার মাহবুবুল হক। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় পরিকল্পনা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. তৌফিকুল আরিফ, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডঃ ইয়াহিয়া মাহমুদ, মৎস্য অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগ কুমিল্লা মোহাম্মদ আবদু চত্তার, কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম, কালের কন্ঠের বিশেষ প্রতিবেদক তোফায়েল আহমেদ, প্রথম আলো কক্সবাজার অফিস প্রধান আব্দুল কুদ্দুস রানা। প্রামাণ্যচিত্র উপস্থাপনা করেন চিংড়ি উৎপাদন বিশেষজ্ঞ মোতাব্বির খন্দকার পলাশ।