ইউপি নির্বাচনের পঞ্চম ধাপে হরিরামপুরে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ১

সায়েম খান, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ সাধারণ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন মানিকগঞ্জের হরিরামপুরের ধূলশুড়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান জায়েদ খান।
এ উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনিই প্রথম বারের মতো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হলেন বলে জানা যায়।
গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চলতি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক লাভ করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য জায়েদ খান।  এছাড়াও এ ইউনিয়নে আ’ লীগের দলীয় নির্বাচনী ফরম কিনেছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওছার। কিন্তু আ’ লীগের কেন্দ্রীয় দলীয় মনোনয়ন বোর্ড নৌকার মাঝি হিসেবে দায়িত্ব তুলে দেন বর্তমান চেয়ারম্যান জায়েদ খানের হাতে। ফলে আর কোনো প্রার্থী এখানে প্রতিদ্বন্দ্বীতা না করায় ১৯ ডিসেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে জায়েদ খানকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।
এ বিষয়ে চেয়ারম্যান জায়েদ খান জানান, “আমাকে এই ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকে মনোনীত করায় আমি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা রাষ্ট্র প্রধান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মানিকগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ মমতাজ বেগম এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. গোলাম মহীউদ্দীনকে। তাঁদের সুদৃষ্টি ও সার্বিক ব্যবস্থায় আমার ইউনিয়নে পর্যাপ্ত পরিমাণ উন্নয়ন করতে পেরেছি। আমি ধন্যবাদ জানাই, আমার এলাকার আপামরজনগণসহ দলীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি, যাদের ত্যাগ ও সহযোগিতায় আমি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। আমি আগামী দিনগুলোতে আমার ইউনিয়নের সকল জনগণকে সাথে নিয়েই উন্নয়নমূলক কার্যক্রম করব, ইনশাআল্লাহ।”
উপজেলা নির্বাচন কমিশনার মো. কামরুজ্জামান জানান, “ধূলশুড়া ইউনিয়নে একাধিক প্রার্থী না থাকায় জায়েদ খান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেও নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী জানুয়ারির ৫ তারিখ ভোট গ্রহণ শেষে অন্যান্যদের সাথে তার গেজেট প্রকাশ করা হবে।”