আবারও জরিমানার সম্মুখীন গুগল, মেটা

আবারও জরিমানার সম্মুখীন হয়েছে গুগল। বেআইনি কনটেন্ট মুছে ফেলার ব্যর্থতা হিসাবে এ জরিমানা করা হয়। এবারের জরিমানার পরিমাণ ছিল ৭.২ বিলিয়ন রুবল (৯৮মিলিয়ন ডলার)। এটি রাশিয়ার প্রথম রাজস্বভিত্তিক জরিমানা। এর প্রতিক্রিয়ায় গুগল একটি ই-মেইলে বলেছে, পরবর্তী পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে তারা আদালতের রায় রিভিউ করবে। এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আদালত একই অভিযোগের ভিত্তিতে মেটা প্ল্যাটফর্মকে ২ বিলিয়ন রুবল (২৭.১৫ মিলিয়ন ডলার) জরিমানা করেছে। রুশ সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম রাশিয়ান আইন লঙ্ঘন করে এমন দুই হাজার কনটেন্ট অপসারণে ব্যর্থ হয়েছে। যেখানে গুগল ২৬০০ কনটেন্ট সরাতে পারেনি।

এ বিষয়ে মেটা অবশ্য কোনো মন্তব্য করেনি। এ বছর মস্কো বড় প্রযুক্তির ওপর চাপ উল্লেখযোগ্য হারে বাড়িয়েছে। সমালোচকরা যাকে রাশিয়ান কর্তৃপক্ষের দ্বারা ইন্টারনেটের ওপর কঠোর নিয়ন্ত্রণ প্রয়োগের প্রচেষ্টা হিসাবে চিহ্নিত করেছে। তাদের ভাষায়, এ উদ্যোগ ব্যক্তি এবং করপোরেট স্বাধীনতার জন্য হুমকি। চলতি বছরে রাশিয়া বিদেশি প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর ওপর ছোট ছোট জরিমানা আরোপ করেছে। কিন্তু শুক্রবারের জরিমানা ছিল ব্যতিক্রম। এটি প্রথমবারের মতো কোনো কোম্পানির বার্ষিক রাশিয়ান টার্নওভারের শতাংশ নির্ধারণ করেছে।

রাশিয়া প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে মাদকের অপব্যবহার, বিপজ্জনক বিনোদন, বাড়িতে তৈরি অস্ত্র এবং বিস্ফোরক সম্পর্কিত তথ্য, সেই সঙ্গে চরমপন্থি বা সন্ত্রাসী হিসাবে চিহ্নিত করা গ্রুপগুলোর পোস্ট মুছে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিল। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে একজন রাশিয়ান ব্যবসায়ী আদালতে করা মামলায় গুগলের বিরুদ্ধে বিজয়ী হয়েছেন। সেখানে প্রযুক্তি জায়ান্টটিকে আরও একবার বড় অঙ্কের জরিমানা করা হতে পারে।