আন্তঃজেলা চোরচক্রের মূলহোতাসহ ০৪ জন গ্রেফতার

মাসুদ রানা, সিনিয়র রিপোর্টার: র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‍্যাব-৩ এর  আওতাধীন সকল নাগরিকের নিরাপত্তা সুনিশ্চিতকরার লক্ষ্যে কাজ করছে প্রতিনিয়ত ।

সাম্প্রতিক সময় র‍্যাব-৩ সুনির্দিষ্ট কিছু অভিযোগের ভিত্তিতে র‍্যাব-৩ এর আভিযানিক দল গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে জানতেপারে যে, রাজধানীর সবুজবাগ ও মুগদা থানাধীন এলাকায় বিভিন্ন গ্যারেজের ভিতর কতিপয় সংঘবদ্ধ চোর চক্রের সদস্যরাদীর্ঘদিন যাবৎ চোরাই ও ছিনতাইকৃত বিভিন্ন রংয়ের ব্যাটারী চালিত চোরাই এবং ছিনতাইকৃত রিক্সা মজুদ করে পরে ইহার রংপরিবর্তন করে বিক্রয় করে আসছে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-৩ এর একটি আভিযানিক দল ১৭ আগস্ট ২০২২ ইং ভোর ০৫ ঘটিকার সময় রাজধানীর সবুজবাগও মুগদা থানাধীন এলাকায় বিভিন্ন গ্যারেজের ভিতরে অভিযান পরিচালনা করে সংঘবদ্ধ রিক্সা চোর চক্রের মূলহোতা মোঃকামাল হোসেন কমল (৩৬) মোঃ সাজু (৩৫)মোঃ ফজলু (৩০) মোঃ শাহিন সরদার (৬০)কে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে  গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামীদের নিকট হতে বিভিন্ন রংয়ের ব্যাটারী চালিত ২৩ টি অটোরিক্সা, ১৮টি অটোরিক্সার চার্জার ব্যাটারী, ০৪ টি মোবাইল ফোন, ০৪ টি মাস্টার চাবী এবং নগদ ১৬০০/-টাকা উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা জানান,তাদের চক্রের মূলহোতা কমল। সে ১৫ বছর পূর্বে কাজের সন্ধানে ঢাকায় এসে রিক্সাচালানো শুরু করে। একদিন তার রিক্সাটি চুরি হয়ে যায়। তারপর রিক্সার মালিক তার নিকট হতে চুরি যাওয়া রিক্সার মূল্যআদায় করে। সে ধার করে উক্ত চুরি যাওয়া রিক্সার মূল্য মালিককে পরিশোধ করে। উক্ত ধারের টাকা পরিশোধ করতে গিয়ে সেচুরি যাওয়া রিক্সা খুজতে থাকে।তার চুরি যাওয়া রিক্সা খুজতে গিয়ে অপরাধ জগতের সদস্যদের সাথে তার পরিচয় হয়। এরপরসে নিজেই রিক্সা চুরিকে তার পেশা হিসেবে বেছে নেয়। সে ১২ বছর যাবৎ রিক্সা চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি করে আসছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীরা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়া বিভিন্ন গ্যারেজকে নিরাপদ স্থান হিসেবে দীর্ঘদিনধরে ব্যবহার করে আসছে।

আসামীদের এরূপ কার্যকলাপের ফলে গরীব ও নিরীহ ব্যাটারী চালিত রিক্সার চালক ও মালিকগণআর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
র‌্যাবের অভিযানে উক্ত আসামীরা আটক হওয়ার ফলে গরীব ও নিরীহ রিক্সা চালক ওমালিকদের মনে স্বস্তি ফিরে এসেছে।কাওরান বাজার র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব-৩ এর সিইওলেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ জানান,গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।