অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট কানাডার বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই বাংলাদেশের

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত আসরের চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। কিন্তু সেই চ্যাম্পিয়নরা চলতি আসর শুরুই করেছে বাজেভাবে বড় হার দিয়ে। ইংল্যান্ডের কাছে হেরেছে ৭ উইকেটে। পরবর্তী রাউন্ডে যেতে হলে ‘এ’ গ্রুপের শেষ দুই ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) কানাডার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামবে সেন্ট কিটসের কোনারি ক্রিকেট সেন্টারে।

খেলা শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায়। কানাডা প্রথম ম্যাচ হেরেছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে ৪৯ রানে। গ্রুপে বাংলাদেশের অবস্থান এখন তলানিতে। ২ পয়েন্ট করে নিয়ে নেট রান রেটে ইংল্যান্ড একে ও সংযুক্ত আরব আমিরাত দুইয়ে আছে।

জয়-পরাজয় খেলারই অংশ। কিন্তু প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ যেভাবে হেরেছে তা ছিল খুবই দৃষ্টিকটু। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৯৭ রানে অলআউট হয়েছিল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। এক পর্যায়ে ৫১ রানে হারিয়েছিল ৯ উইকেট। সেখান থেকে নাঈমুর রহমানকে নিয়ে রিপন মণ্ডল জুটি বেঁধে দলের রানকে ৯৭ পর্যন্ত নিয়ে যান। রিপন মণ্ডল অপরাজিত ছিলেন ৩৩ রানে।

বাজেভাবে শুরু করার পর একটি দলের আবার ফিরে আসা অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। বাংলাদেশের জন্যও অনেক কঠিন একটি কাজ। এখন সেই কঠিনেরেই জয় করতে হবে। তবে এখানে স্বস্তির বিষয় বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ। আইসিসির সহযোগী সদস্য সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রতিপক্ষ হিসেবে খুব একটা ভয়ের কারণ নেই। যদি বাংলাদেশ নিজেদের মান অনুযায়ী খেলতে পারে, তাহলে আরব আমিরাত কোনো বাধা হয়ে উঠতে পারবে না। জরিপে বাংলাদেশের জয়ের পাল্লাই ভারী দেখানো হয়েছে শতকরা ৭৭ ভাগ।

ইংল্যান্ডের বোলারদের তোপে পড়ে বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডার যেভাবে ভেঙে পড়েছিল, ততোটা দুর্বল আবার নয়। আরিফুল, প্রান্তিক নওরোজ, আইচ মোল্লা, ফাহিম, মাহফিজুলদের বড় বড় ইনিংস খেলার সক্ষমতা রয়েছে। যদিও প্রথম ম্যাচে হারের পর দলপতি রকিবুল হাসান ব্যাটসম্যানদেরই কাঠগড়ায় তুলেছিলেন। বোলাররা অবশ্য তাদের মান অনেকটাই ধরে রেখেছেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ৯৭ রানের পুঁজি নিয়েও তারা লড়াই করেছিলেন। তুলে নিয়েছিলেন ৩ উইকেট।